1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
ইতিহাসের কত কথা - মুক্তকথা
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৩:০৯ অপরাহ্ন

ইতিহাসের কত কথা

বিশেষ প্রতিনিধি॥
  • প্রকাশকাল : শুক্রবার, ১২ আগস্ট, ২০২২
  • ৭৯১ পড়া হয়েছে

 

ইরাণের কাজার গোত্র


সে ইরাণ দেশের ইতিহাসের এক করুণ কাহিনী। কাহিনীর সময় ১৭৪২ খৃস্টাব্দ। ইরাণের গুলেস্থান প্রদেশের রাজধানী গুরগাঁ শহরের এই কাহিনী যেমন চমকদার তেমনি করুণও আবার ঐতিহাসিকও বটে। রাজধানী গুরগাঁ শহরের অপর নাম ‘এস্তেরাবাদ’। এস্তেরাবাদ শহরটি বর্তমান তেহরান থেকে উত্তর-পূর্বে প্রায় ২৫০মাইল দূরের উঁচু-নিচু পাহাড়ে ঘেরা একটি ছিমছাম শহর। কাস্পিয়ান সাগর থেকে প্রায় ১৯ মাইল ভেতরে বা দূরে শহরটির অবস্থান।

১৭৮৫ ইংরেজী থেকে ১৯২৫ ইংরেজী মোট ১৪০বছর সময়। এ সময়ের মধ্যে প্রাচীন ইরাণ দেশ গঠনে সামন্তবাদী গোত্রতান্ত্রিক সংযুক্ত শাসন ব্যবস্থায় উত্তরণ ঘটিয়ে কেন্দ্রিভুত রাজতন্ত্রে পৌঁছে এবং তার পর সে রাজতন্ত্র থেকে আরো কয়েক ধাপ উত্তরণ ঘটিয়ে আধুনিক শাসনতান্ত্রিক সংসদীয় রাষ্ট্রকাঠামোয় পৌঁছায় আজ থেকে ৯৭ বছর আগে সেই ১৯২৫সালে। দীর্ঘ এ পথ পাড়ি দিতে ইরাণকে যেমন অনেক কিছুই হারাতে হয়েছে পেয়েছেও অনেক। অন্ততঃ শক্তিশালী একটি বিশ্ব রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে দাঁড়িয়েছে।

দীর্ঘ সে পথপরিক্রমায় বহু ঘটনার সাথে যুক্ত হয়ে আছে রাজা আগা মোহাম্মদ খান-এর কাহিনী। ফার্সীদের রাজা আগা মোহাম্মদ খাঁ। তুর্কি বংশোদ্ভুত ইরাণের রাজবংশের কাজার গোত্রের মানুষ ছিলেন তিনি। ১৭৮৯ ইংরেজী থেকে এই কাজার গোত্র পুরো ইরাণকে শাসন করেছে ১৯২৫ইংরেজী পর্যন্ত। এই কাজার পরিবার পুরো ইরাণের শাসনভার হাতে তুলে নেয় ১৭৯৪ সালে। ১৭৯৬ সালে এই মোহাম্মদ খাঁ কাজার আফশারিদ গোত্রের কাছ থেকে ক্ষমতা নিজের হাতে তুলে নেন এবং তাকে নিয়ম মোতাবেক ইরাণের রাজা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হন। তিনিই কাজার রাজবংশের প্রতিষ্ঠা করেন।


আমাত্য ইব্রাহীম খাঁ-এর সাথে রাজা আগা মোহাম্মদ খাঁ।
তথ্য ও ছবি: অন্তর্জাল

রাজা আগা মোহাম্মদ খাঁ ক্ষমতায় আসার পর ইরাণকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন

রাজা আগা মোহাম্মদ খাঁ ক্ষমতায় আসেন ১৭৮৯সালে কিন্তু রাজা হিসেবে তাকে রাজমুকুট পড়ানো হয় ৭বছর পরে ১৭৯৬সালে। ইতিহাস বলে, ১৭৬৯ সাল থেকে ১৭৯৪ সাল পর্যন্ত ইরাণের রাজা ছিলেন যান্দ গোত্রের লত্ফ আলী খান। এই লত্ফ আলী খানকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে ক্ষমতায় আসতে আগা মোহাম্মদ খানের এ সময় লেগেছিল।

ক্ষমতায় এসেই তিনি ইরাণের বহুধাবিভক্ত গোষ্ঠীগুলোকে এক করতে সক্ষম হন। সাধারণ মানুষের মাঝে ঐক্য গড়ে তোলা সকল যুগেই সবচেয়ে কঠিন কাজ। আর আগা মোহাম্মদ খাঁ সে কাজটি করেছিলেন খুবই দক্ষতার সাথে। এ ছিল তার রাজনৈতিক জীবনের আলোকিত সময় আর রাজা হওয়ার পথের সোপানের মত।

মানুষের জীবনে মানুষই ভুলকে অতিক্রম করে সফলতাকে ডেকে নিয়ে আসে এরপরও ভুল থেকে যায়। এই থেকে যাওয়া খুবই স্বাভাবিক যা ঘটেছিল এই রাজা আগা মোহাম্মদ খাঁ কাজারের জীবনে। ক্ষমতায় এসেই তিনি তার দুই ভৃত্যের মৃত্যুদণ্ডের হুকুম দেন। তার মতে এ দুই ভৃত্যু অতিরিক্ত কোলাহলি, বেশী কথা বলে। আর এ কারণেই তাদের শাস্তি দেন মৃত্যুদণ্ড। নিজ ভৃত্যকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করা একজন রাজার জন্য যেমন খুবই ছোট কাজ তেমনি হাস্যকরও বটে। আর আগা মোহাম্মদ খাঁ কাজার সেই হাস্যকর শাস্তির ঘটনাটি ঘটিয়েছিলেন। ভৃত্যদের মৃত্যুদণ্ডের সেই দিনগত রাতই স্বয়ং রাজার মৃত্যুকে ডেকে আনে।

মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেয়ার সে দিনটি ছিল ইরাণের মানুষের একটি পবিত্র দিন। আর তাই রাজা দণ্ডের হুকুম বহাল রেখে শুধু পবিত্র দিনের কারণে ভৃত্যদের পরের দিন দণ্ড কার্যকরের ঘোষণা দেন এবং ভৃত্য দু’জনকে তাদের আগের কাজে যাবার নির্দেশ দেন। ভৃত্য দু’জন তাদের কাজে চলে যায় এবং রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় রাজা আগা মোহাম্মদ খাঁ’কে হত্যা করে।

একটি বিষয়ে ইতিহাস খুব নিরব। অনেক খুঁজাখোঁজির পরও মৃত্যুদণ্ডের তারিখটি কোথায়ও পাওয়া যায়নি। ফলে কোন সে তারিখে তাকে ঘুমন্ত অবস্থায় হত্যা করা হয় তা জানা যায় নি।


এই পাহাড়ী উপত্যকায় গড়া অঞ্চল ‘গরগাঁ’-এ জন্মেছিলেন ঐক্যবদ্ধ ইরাণের রাজা আগা মোহাম্মদ খাঁ কাজার।
তথ্য ও ছবি: অন্তর্জাল

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT