1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
"আইয়ামে জাহেলিয়াতে"র ঐতিহ্য বটে! - মুক্তকথা
শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:১৭ অপরাহ্ন

“আইয়ামে জাহেলিয়াতে”র ঐতিহ্য বটে!

সংবাদদাতা
  • প্রকাশকাল : বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
  • ৬৭৫ পড়া হয়েছে

1471561118666মুক্তকথা: বুধবার, ৭ই সেপ্টেম্বর ২০১৬।। মধ্যপ্রাচ্য! আধুনিক নাম। এক সময় এই মধ্যপ্রাচ্য আরব জাহান বা আরব মুল্লুক নামেই অন্ততঃ আমরা ভারতীয় বা বাঙ্গালী মানুষের কাছে পরিচিত ছিল। হাম্বুরাব্বি আর বেবিলনীয় সভ্যতার দেশ এই আরব। অগনিত যুদ্ধবিগ্রহ, ভাইয়ে ভাইয়ে খুনোখুনি, চরম নৈরাজ্য আবার পরম শান্তি সব কিছুই আছে আরবের ইতিহাসে। বিশ্ব মানব সভ্যতার ইতিহাসে প্রাচীণ আরবের অবদান অপরিসীম। মানুষের প্রাচীনতম বহু সভ্যতা গড়ে উঠেছে, বিলুপ্ত হয়েছে, আবার দাড়িয়েছে এই প্রাচীণ আরবের মাটিতে। এখানে যেমন অসংখ্য মহাপুরুষের জন্ম হয়েছে তেমনি অসংখ্য ইয়াজিদেরও জন্ম দিয়েছে এই মাটি। ইসলামের প্রেরীত পুরুষ নবী মোহাম্মদ তার জমানার এক সময়কে “আইয়ামে জাহেলিয়াৎ” বলেছিলেন বলে পুস্তকে উল্লেখ আছে।

মহান দুর্ধর্ষ সেই আরবের আধুনিক এক নারী রাজকুমারী শেইকা সালওয়া। গত ১৪ই আগষ্ট বৃটেনের প্রভাবশালী পত্রিকা “দি ফিনানসিয়েল টাইমস” তাকে নিয়ে এক ধিকৃত কেলেঙ্কারীর খবর ছেপেছে। খবরে জানা যায় যে, ওই রাজকুমারী সালওয়ার “নিজস্ব লন্ডন এপার্টমেন্টে (মধ্যপ্রাচ্য নিউজ এজেন্সি’র ভাষায়) স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের সহযোগীতায় ‘এম আই৬’ নামক বৃটিশ গোয়ান্দা পুলিশ এক দুষ্কৃতিকারীর অনুসন্ধান করতে গিয়ে আবিষ্কার করে রাজকুমারী সালওয়াকে। ৩জন বৃটিশ নাগরীকের সাথে তিনি অন্যায় ও নিষিদ্ধ মাত্রায় যৌণমিলনে রত এবং আরো ৪জন সুঠামদেহী বৃটিশ পুরুষকে কক্ষের বাহিরে তার সাথে যৌণমিলনের জন্য অপেক্ষারত অবস্থায় পায় গোয়েন্দা পুলিশ। যা তাদের ভাষায় একই সঙ্গে বহু জনের সাথে যৌণ সম্পর্ক(collective sex) স্থাপন। এ হেন ঘটনায় বৃটিশ গোয়েন্দারা স্তম্ভিত হয়ে যায়। খবর নিয়ে গোয়েন্দারা দেখে যে যৌণকর্মে সংশ্লিষ্ট মহিলা একজন কাতারি রাজকুমারী।
যাকে খুঁজে গোয়েন্দারা ওখানে গিয়েছিল, তদন্তের সময় সন্দেহজনক ওই ব্যক্তি স্বীকার করে যে কাতারি রাজকন্যা, কাতারের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী “হামাদ বিন জসিম বিন জাবর আল থানি’র কন্যা (Prime Minister Hamad bin Jassim bin Jabor Al Thani)। ওই দালাল আরও স্বীকার করে যে একজন মধ্যস্ততাকারীর মাধ্যমে রাজকুমারী প্রচুর টাকার বিনিময়ে তার সহায়তায় বিশেষ ভঙ্গির যৌণ ক্রীয়ায় পারদর্শী এসব বৃটিশ পুরুষদেরকে ভাড়া করে এনেছেন।

নিরাপত্তা গোয়েন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদের সময়ই রাজকুমারী ওই মধ্যস্ততাকারীকে নির্দেশ দেন, বাকীদের ভেতরে নিয়ে আসতে এবং তাকে বাইরে দাড়িয়ে অপেক্ষা করতে যেনো কোন ভয়ে ওরা আবার পালিয়ে না যায়। কারণ এর আগের দফায় পালিয়ে যাবার ঘটনা ঘটেছিল।

গোয়েন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদের উত্তরে রাজকুমারী শেইকা সালওয়া বলেন যে এ কাজ কোন অবস্থায়ই নিষিদ্ধ কোন কাজ নয়। তিনি নিজে থেকে এই পুরুষদেরকে টাকা দিচ্ছেন। আর তিনি জানেন এই কাজ কোনভাবেই বৃটিশ কোন আইন ভঙ্গন নয়!

এ সময় পুলিশ তাকে বলে যে, কোন অপরাধীকে যৌণকাজের জন্য ব্যবহার এমনকি টাকা দেয়া আইনের চোখে অপরাধ। অন্যান্য আইনের মত, পুরুষের যৌণব্যবসাও আইনের বাহিরে নয় এবং রাজকুমারী এই আইন লঙ্গনকরে যৌণসেবা পাওয়ার ব্যবস্থা করেছেন।
অফিসের সাথে সংশ্লিষ্ট জনৈক ব্যক্তি “ফাইনানসিয়েল টাইমস” কে বলেন যে বিষয়টি বেশীদূর যাবে না কারণ রাজকুমারীর কূটনৈতিক পাসপোর্ট রয়েছে। বৃটিশ পুলিশ ঘটনাটির বিষয়ে কাতারী দূতাবাসকে অবহিত করেছে ঠিকই কিন্তু সংশ্লিষ্ট ওই রাজকুমারী তার দ্বারা সংঘটিত এই আইন ও সমাজবিরুধী কাজের জন্য সামান্যতমও সংকিত নন, কোন অনুশোচনাও তার নেই। তিনি, শুধু এই কলঙ্ককর ঘটনাটি যা’তে কোন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত না হয় সে বিষয়ে সচ্চেষ্ট ছিলেন, বলেছে পুলিশ।

“ফাইনানসিয়েল টাইমস”এর খবর মিথ্যা হবার কোন সুযোগই নেই তবুও আমরা কাতার দূতাবাসের সাথে যোগাযোগ করি। দূতাবাসের বার্তা বিভাগ আমাদের ইমেইল করে যোগাযোগ করার কথা বলে। আমরা ইমেইলে যোগাযোগ করি কিন্তু আজ অবদি কোন উত্তর পাইনি।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT