1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
আন্তর্জাতিক ভাষা শিক্ষা, গবেষণা ও শিশুবিকাশ কেন্দ্র" - মুক্তকথা
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ১২:০২ অপরাহ্ন

আন্তর্জাতিক ভাষা শিক্ষা, গবেষণা ও শিশুবিকাশ কেন্দ্র”

বিশেষ প্রতিনিধি॥
  • প্রকাশকাল : বুধবার, ১৮ আগস্ট, ২০২১
  • ৭৪৮ পড়া হয়েছে

“আন্তর্জাতিক ভাষা শিক্ষা, গবেষণা ও শিশুবিকাশ কেন্দ্র”, (“Center for International Language Studies and Research”) নামের একটি আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন পাঠশালা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গত ১৬ আগষ্ট সোমবার লণ্ডন নগরের কেমডেন শহরে বাঙ্গালী জনগোষ্ঠীর এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। কেমডেন শহরের একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত উক্ত সভায় উপস্থিত সকলেই একমত হয়ে উপরোক্ত প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন।”

সভায় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন প্রতিষ্ঠান ও সভার উদ্যোক্তা এডভোকেট সাংবাদিক হারুনূর রশীদ। ইংরেজীতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী বিলকিস এইচ রশীদ।
বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী বাঙ্গালী বিলকিস এইচ রশীদ বলেন-“আমি খুব দুঃখ অনুভব করি এই ভেবে যে লণ্ডনে বসবাসকারী একটি শিক্ষিত রুচিশীল বাঙ্গালী পরিবারের সন্তান হয়ে আমি নিজের জাতীয় ভাষা বাংলা বলতে পারিনা। তবে নিজেদের গৃহভাষা সিলেটী বলতে পারি এজন্য কিছুটা স্বস্তিবোধ করি। বাংলা দেশের আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধবদের সাথে অন্ততঃ যোগাযোগ রক্ষা করতে পারি।”
তিনি আরো বলেন-, “আমাদের মহান ভাষা বাংলাসহ প্রধান প্রধান আন্তর্জাতিক ভাষা যেগুলো শিখিয়ে আমাদের শিশুদের গড়ে তুলতে পারলে মোকাবেলাময় এ চলমান বিশ্বে নিজেদের সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে পারবে; মাথা উঁচু করে চলতে পারবে, বিশ্বের মানুষকে নতুন আলোর দিশা দেখিয়ে জাতিকে গৌরবের আসনে বসাতে পারবে” এমন চিন্তা থেকেই আমাদের এ পাঠশালা ও গবেষণা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার চিন্তা-ভাবনা নিয়ে আপনাদের সামনে এসেছি। আপনাদের সহযোগীতা আমাদের সফলতা বয়ে নিয়ে আসবে এমন কামনা করি।”

সভায় ‘ওয়াট্স এপ গ্রুপ’ “ইউনিটি”র প্রধান আব্দুল মালিক বলেন-“প্রবাসে আমাদের শিশু-কিশোর-কিশোরীরা যে নমুনায় বদলে যাচ্ছে তাকে আটকানো আমাদের একান্ত প্রয়োজন।” তিনি আরো বলেন- “এমন মহান মহতি কাজ কোন দেশ বা সমাজে একা কোন মানুষের পক্ষে করে নেয়া সম্ভব নয়। সামাজিক সহযোগীতা অতীব প্রয়োজন। আমি ব্যক্তিগতভাবে এমন উদ্যোগের সাথে সকল সহযোগীতা করে যাবো।”

বিশিষ্ট ও ব্যস্ত রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ী আব্দুল ওয়াহিদ বলেন, “দেরীতে হলেও এমন একটি উপযোগী শক্তিমান উদ্যোগকে আমি সাধুবাদ জানাই। আমি অন্তর থেকে মনে করছি এ উদ্যোগ আমারই উদ্যোগ যা হওয়া উচিৎ ছিল। দেশ ও প্রবাসে এমন উদ্যোগের সাথে আমাদের সরকারের পূর্ণ সহযোগীতা থাকা খুবই আবশ্যক বলে আমি মনে করি। আমার পক্ষ থেকে সকল ধরনের সহযোগীতা অব্যাহত থাকবে।”

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- ড. আবু মোস্তাফা, মজিদুর রহমান, নাহিম আহমদ, মৃনাল সেনগুপ্ত, রাহেল বক্ত, কাজী শহীদ, সাদিক আহমদ চৌধুরী, খালেদুর রহমান, নূর উদ্দীন নসরু ও উদ্যোক্তা হারুনূর রশীদ।

করোণা মহামারীতে লাখ লাখ মৃত্যুপ্রাপ্তদের স্মরণ করে একটি কবিতা আবৃত্তি করেন বাংলাদেশ থেকে আগত হিসাব সংরক্ষন বিদ্যার ছাত্রী কনিকা হক। সভায় সভাপতিত্ব করেন কেমডেন বাঙ্গালী রেসিডেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি খালেদুর রহমান।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT