1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
আলী ফাউন্ডেশনের স্মারকলিপি, প্রবাসীদের রেমিটেন্স ও চিত্র প্রদর্শনী - মুক্তকথা
মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০২:১১ অপরাহ্ন

আলী ফাউন্ডেশনের স্মারকলিপি, প্রবাসীদের রেমিটেন্স ও চিত্র প্রদর্শনী

আনসার আহমদ উল্লাহ ও মতিয়ার চৌধুরী
  • প্রকাশকাল : বুধবার, ১০ জুলাই, ২০২৪
  • ৪৯ পড়া হয়েছে

সিলেটের মেয়রের কাছে
আলতাব আলী ফাউন্ডেশনের স্মারকলিপি

 

সম্প্রতি, আলতাব আলী ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে প্রবাসী বাঙালিদের অবদানের স্বীকৃতির দাবিতে সিলেট সিটি মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সঙ্গে লন্ডনে দেখা করে।

প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন সংগঠনের সভাপতি নুরুদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আনসার আহমেদ উল্লাহ ও সহ-সম্পাদক জামাল আহমেদ খান। তারা তার সাফল্যের জন্য আন্তরিক অভিনন্দন প্রকাশ করেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীকে মনোনয়ন দেওয়া জন্যে।

আলতাব আলী ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি দল বিশ্বাস করে যে প্রধানমন্ত্রীর এই নিয়োগটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও সমৃদ্ধিতে বাঙালি প্রবাসীদের অবদানের স্বীকৃতি এবং বাংলাদেশি প্রবাসীদের কল্যাণে তার অঙ্গীকারের স্বীকৃতি।

তবে আলতাব আলী ফাউন্ডেশন মেয়রের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন যে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর থেকে অর্ধ শতাব্দীরও বেশি সময় ধরে, বাঙালি প্রবাসীদের অবদানের, স্বাধীনতার সংগ্রামে এবং অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক অবদান উভয় ক্ষেত্রেই, আজ পর্যন্ত কোন স্বীকৃতি মেলেনি।

আলতাব আলী ফাউন্ডেশন তাই মেয়রের সদয় বিবেচনার জন্য নিম্নলিখিত প্রস্তাব করেছে, (1) সিলেট সিটি কর্পোরেশন বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং সিলেটে অভিবাসনের ইতিহাসে যুক্তরাজ্যের বাঙালি প্রবাসীদের অবদানকে স্বীকৃতি দিয়ে একটি স্থায়ী ম্যুরাল তৈরি করবে, (২) প্রবাসী কেন্দ্র – স্বাধীনতা, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও সমৃদ্ধির গৌরবময় সংগ্রামে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অবদানকে স্বীকৃতি দিতে এবং উদযাপন করতে সিটি সেন্টারের কেন্দ্রস্থলে একটি আধুনিক অত্যাধুনিক প্রবাসী কেন্দ্র নির্মাণের প্রস্তাব এবং (৩) প্রাইড অব বাংলাদেশ মনুমেন্ট প্রস্তাব করা হয় যে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও সমৃদ্ধিতে বৈশ্বিক বাংলাদেশি অভিবাসীদের অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এবং বিশ্বব্যাপী বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির সুরক্ষা ও প্রচারের জন্য ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আসা এবং যাওয়ার প্রধান সংযোগস্থলে একটি স্থায়ী স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের দাবী করেন তারা।


 

প্রবাসীদের রেমিটেন্স ও আইনী সুরক্ষা নিয়ে
সিলেটে সেমিনার অনুষ্ঠিত

আনসার আহমেদ উল্লাহ

ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশ শীর্ষক ওয়ার্ল্ড কনফারেন্স সিরিজ ২০২৪ এর অধীনে “এনআরবি রেমিট্যান্স, বিনিয়োগ এবং আইনি সুরক্ষা এবং জাতিসংঘ শান্তিরক্ষীদের ভূমিকা” শীর্ষক এক সেমিনার সিলেটে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

 

 

৬ জুলাই জিন্দাবাজার রিচমন্ড হোটেলে সেন্টার ফর এনআরবি’র উদ্যোগে এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী এমপি।

সেন্টার ফর এনআরবির চেয়ারপার্সন এম এস সেকিল চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রীম কোর্টের বিচারপতি খিজির আহমদ চৌধুরী। অনুষ্ঠানে মূল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সাবেক প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাশিহুজ্জামান সেরনিয়াবত, বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালক মোঃ বায়েজিদ সরকার, প্রবাসী রেজাউল কবির রাজ । বিভিন্ন বিষয়ে বক্তব্য রাখেন সিলেট চেম্বারের সহ সভাপতি এহতেশামুল হক চৌধুরী, ব্যারিষ্টার ফয়েজ উদ্দীন আহমদ, লেখক শিক্ষাবিদ মিহিরকান্তি চৌধুরী, লন্ডন প্রত্যাগত প্রবাসী নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান সাদাত মান্নান অভি ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের এনআরবি চীফ কনসালটেন্ট ড. মিসবাউর রহমান ।

প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, প্রবাসীদের হয়রানি রোধে কেন্দ্র থেকে উপজেলা পর্যায়ে প্রবাসী কল্যাণ সেল গঠন করা হবে ।সিলেটে বিদ্যমান প্রবাসী কল্যাণ সেলের বিষয়ে আলোকপাত করে তিনি বলেন, কেন্দ্র থেকে শুরু করে উপজেলা পর্যায়ে এ সেলকে বিস্তৃতির পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। প্রবাসী কল্যাণ ছাড়াও পররাষ্ট্র, স্বরাষ্ট্র ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়সহ অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিদের নিয়ে গঠন করা হবে কেন্দ্রীয় কমিটি। প্রতিটি বিভাগ ও জেলার পাশাপাশি উপজেলা পর্যায়েও অনুরূপ সেল গঠন করা হবে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমরা প্রবাসীদের শর্তহীন সহযোগিতা করতে চাই।

সেন্টার ফর এনআরবির চেয়ারপার্সন এম এস সেকিল চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রীম কোর্টের বিচারপতি খিজির আহমদ চৌধুরী। অনুষ্ঠানে মূল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সাবেক প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাশিহুজ্জামান সেরনিয়াবত, বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালক মোঃ বায়েজিদ সরকার, প্রবাসী রেজাউল কবির রাজ। বিভিন্ন বিষয়ে বক্তব্য রাখেন সিলেট চেম্বারের সহ সভাপতি এহতেশামুল হক চৌধুরী, ব্যারিষ্টার ফয়েজ উদ্দীন আহমদ, লেখক শিক্ষাবিদ মিহিরকান্তি চৌধুরী।

প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, প্রবাসীরা কেবল অর্থনৈতিকভাবে নয়, সামাজিকভাবেও অবদান রাখছেন। সিলেটের বেশীরভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও রাস্তা-ঘাটে প্রবাসীদের অবদান রয়েছে। সদ্য সমাপ্ত যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে ৪ জন বাংলাদেশীর এমপি হবার বিষয়টি আমাদের জন্য গৌরবের। প্রসঙ্গক্রমে তিনি বলেন, প্রবাসীদের যেমন অবদান আছে, তেমনি সমস্যাও রয়েছে। নিজেদের পরিবারের মধ্যে , ব্যবসায়িক পার্টনারের মধ্যে অনেক ঝামেলার সৃষ্টি হয়। এটা লাঘবের জন্য শক্তিশালী করা হবে প্রবাসী কল্যাণ সেলকে।

সুপ্রীম কোর্টের বিচারপতি খিজির আহমদ চৌধুরী বলেন, আমাদের অর্থনীতির ভিতকে শক্তিশালী করতে প্রবাসীদের প্রেরিত রেমিট্যান্স গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ স্থিতিশীল রাখছে তাদের পাঠানো রেমিট্যান্স। প্রবাসীরা বিদেশে বাংলাদেশের দূতের কাজ করছেন বলে তিনি মন্তব্য করেন।

সভাপতির বক্তব্যে এম এস সেকিল চৌধুরী বলেন, এনআরবি সেন্টারের উদ্যোগে এখন পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অর্ধ শতের অধিক আন্তর্জাতিক কনফারেন্স হয়েছে। এর মধ্যে সিলেটে প্রথম এ ধরণের কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়েছে। কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশের পজিটিভ ইমেজ-তারা বহির্বিশ্বে তুলে ধরতে চান বলে মন্তব্য করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন-বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মোঃ শফিক, সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহাদাত মান্নান অভি, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের এনআরবি চিফ কনসালট্যান্ট ড. মিসবাউর রহমান, আমেরিকা প্রবাসী শাহাব উদ্দীন, সউদী প্রবাসী কাপ্তান হোসেন, ডাঃ নাসিম আহমদ, ব্যাংকার ইশতিয়াক আহমদ চৌধুরী, এবিএম মোস্তাক হোসেন, ইসলামী ব্যাংকের মোঃ জাকির হোসেন , ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের জ্যোতিলাল গোস্বামী, সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির ইকু ও সেক্রেটারী মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, লন্ডন প্রবাসী একাউন্ট্যান্ট এ কে এম সেলিম, এখন টিভির গোলজার আহমেদ ও এনটিভির সজল ছত্রী প্রমুখ।


 

পূর্ব লন্ডনের বাঙ্গালীদের জীবন সংগ্রাম নিয়ে

চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন

মতিয়ার চৌধুরী

‘‘আমিই এখন আমি‘‘ শিরোনামে পূর্ব লন্ডনের বাঙ্গালীর বসতি স্থাপন ও জীবন যাত্রা নিয়ে ইষ্ট লন্ডনে ফোরকর্নাস গ্যালারী আয়োজিত চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন হয়ে গেল ৪জুলাই। বেথনালগ্রীল এলাকার ১২১ রোমান রোডে প্রদর্শনী চলবে ৩ আগষ্ট পর্যন্ত। আর্কাইভ থেকে বাছাই করা আলোক চিত্রগুলোতে ফুটে উঠেছে পূর্ব লন্ডনে বাঙ্গালীদের বসতি স্থাপন কৃষ্টি, ক্যালচার, সামাজিক,সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক এবং জীবনযাত্রার বাস্তব চিত্র। ফোর কর্নাস গ্যালারী আয়োজিত ও স্বাধীনতা ট্রাষ্টের সার্বিক সহযোগীতায় উদ্ভোধনী অনুষ্টানে বক্তব্য রাখেন ফোরকর্নাস গ্যালারীর ডিরেক্টর কার্লা মিচেল, আর্কাইভ কো-অর্ডিনেটর এলেনী প্যারোসী, স্বাধীনতা ট্রাষ্টের ডিরেক্টর ড. আনসার আহমেদ উল্লাহ, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের আর্কাইভ অফিসার এনেট মেক্কিন ও স্বেচ্চাসেবক জুলিয়ান এহসান।

 

প্রদর্শনীতে স্থান পেয়েছে বিগত ৫০ বছরে ফটোগ্রাফার রাজু বৈদ্যনাথন, মায়ার আকাশ, অ্যান্টনি ল্যাম, পল হ্যালিডে, সারাহ আইন্সলি, ডেভিড হ্যফম্যান, পল ট্রেভর এবং স্থানীয় বাঙ্গালীদের ধারন করা পাঁচ হাজারেরও বেশী আলোকচিত্র। ঐতিহাসিক এই আলোকচিত্র গুলো আর্কাইভে সংরক্ষন করা হয়েছে যে কেউ চাইলেই সহজে দেখতে পারবেন জানতে পারবেন পূর্বলন্ডনের বাঙ্গালী সমাজের ইতিহাস।
প্রদর্শনী দেখতে ব্রিটেনের বিভিন্ন প্রান্থ থেকে প্রতিদিনই ভির করছেন ম্যালটি ক্যালচারাল সোইসাটির নানা বয়সের মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT