1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
একদিন যা'কে রেস্তোরাঁয় টেবিল পেতে দাঁড়াতে হয়েছিল তিনিই এখন দেশ চালান - মুক্তকথা
শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৪০ পূর্বাহ্ন

একদিন যা’কে রেস্তোরাঁয় টেবিল পেতে দাঁড়াতে হয়েছিল তিনিই এখন দেশ চালান

বিশেষ প্রতিনিধি॥
  • প্রকাশকাল : বুধবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২২
  • ৭০২ পড়া হয়েছে

‘মেগনাকার্টা’ পরবর্তী বৃটিশ রাজনৈতিক ইতিহাস ৮০০বছর পথ পাড়ি দিয়ে আজকের অবস্থায় পৌঁচেছে। বিশ্ব রাজনীতির ইতিহাসে এ এক অবিস্মরণীয় স্মৃতি ফলক। মানব সভ্যতার সে তীর্থ যাত্রায় বৃটিশ রাজনীতি ও তার ভাবাদর্শ এখনও এক তৃতীয়াংশ বিশ্বে অনুকরণীয় ও অনুস্মরণীয় হয়ে চলছে। বিশ্বরাজনীতির এ অগ্রযাত্রায় বৃটেন এবার নতুন আর একটি অনুস্মরণীয় ‘স্মৃতি ফলক’এর উন্মোচন ঘটিয়েছে। হয়তো এটি বৃটিশ ‘চিন্তাকেন্দ্র'(থিংক টেঙ্ক)এর কোন পরিকল্পিত কাজ নয়। আর পরিকল্পিত নয় বলেই, বলতেই হয় এটি সম্ভবতঃ ছিল সময়েরই দাবী। ধর্ম জাতিবৈশিষ্টের বিষয়টি চিন্তায় নিলে চোখে পড়বে ৩টি উল্লেখযোগ্য বিষয় আর তা’হলো- বর্তমান বৃটেনের রাজধানী লণ্ডন শহরের মেয়র হলেন পাকিস্তানী বংশোদ্ভুত সাদেক খান। এই গতকাল প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত ঋষি সুনাক। বৃটেনের বর্তমান মহামান্য রাজা হলেন তৃতীয় চার্লস ফিলিপ আর্থার জর্জ। ধর্ম দিয়ে চিহ্নিত করতে গেলে তাদের একজন মুসলমান, একজন হিন্দু ও একজন খৃষ্টান। এটি নিশ্চয়ই কোন কাকতালীয় ঘটনা নয়। সময়ের দাবীতে এমনটি হতে হয়েছে। রক্ষণশীল দল ঋষি সুনাককে না দিয়ে টুস’কে মনোনয়ন দিয়েছিল। পরে অনেকটা বাধ্য হয়েই ঋষিকে মনোনয়ন দিতে হয়েছে। একমাত্র জাতীয়  ভোটে যাওয়া ছাড়া দলের সামনে বিকল্প কিছু ছিল না। গণতন্ত্রের সুন্দর্য্য এখানেই।

সাদেক খান মেয়র আছেন গত ২০১৬ সাল থেকে। ঋষি সুনাক গত কাল ২৫ অক্টোবর ‘২২ইং প্রধান মন্ত্রীর দায়ীত্ব নিলেন। মহামান্য রাজা তৃতীয় চার্লস(চার্লস ফিলিপ আর্থার জর্জ) গত সেপ্টেম্বরে রাজা হিসেবে অভিষিক্ত হন। এই ত্রাহ্যস্পর্শ যুক্তরাজ্যকে কতদূর কোথায় নিয়ে যায় এখনই বলা সম্ভব নয়। আমরা অবশ্য এ অবস্থাকে সময়ের খুবই ইতিবাচক ইংগিত বলেই মনে করি।

গতকাল ২৫ অক্টোবর থেকে শুরু হয়েছে বৃটেনের নতুন যাত্রা। মাত্র ৪২ বছর বয়সের ভারতীয় বংশোদ্ভুত বৃটিশ ঋষি সুনাককে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করা হয়েছে। রাজনীতিক ঋষি সুনাক নিশ্চিতভাবেই একজন ব্রিটিশ রাজনীতিবিদ। তিনি ২০১৫ সাল থেকে রিচমন্ডের(ইয়র্ক) আসনের সংসদ সদস্য(এমপি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

সুনাক, সাউদাম্পটনে পাঞ্জাবি ভারতীয় বংশোদ্ভূত বাবা-মায়ের ঘরে জন্মগ্রহণ করেন, যারা ১৯৬০-এর দশকে পূর্ব আফ্রিকা থেকে বৃটেনে আসেন। তিনি অক্সফোর্ডের লিঙ্কন কলেজে দর্শন, রাজনীতি ও অর্থনীতি(পিপিই) পড়েন এবং ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘ফুলব্রাইট স্কলার’ হিসাবে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করেন। লেখাপড়ার জীবনে স্ট্যানফোর্ডে পড়ার সময়, স্ত্রী অক্ষতা মূর্তির সাথে পরিচয় হয়েছিল। এই অক্ষতা মূর্তি, ‘ইনফোসিস’ প্রতিষ্ঠাতা ভারতীয় কোটীপতি ব্যবসায়ী এন আর নারায়ণ মূর্তির মেয়ে। সুনাক ও মুর্তি ব্রিটেনের ২২২ তম ধনী ব্যক্তি। ২০২২ সালের হিসাবে ৭৩০ মিলিয়ন পাউন্ডের যৌথ সম্পদ রয়েছে তাদের।

সুনাকের জন্ম ১২ মে ১৯৮০সাল। তিনি সাউদাম্পটনের বাসীন্দা। তার বাবা ভারতীয় কেনিয়ান যশবীর এবং মা উষা সুনাক। তিন ভাইবোনের মধ্যে তিনি সবার বড়। তার বাবা যশবীর কেনিয়ার(বর্তমান কেনিয়া) কলোনি এবং প্রটক্টোরেটে জন্মগ্রহণ করেন এবং ওখানেই বড় হন। তার মা ঊষা তাঙ্গানিকায় জন্মগ্রহণ করেন। তার দাদা-দাদি ব্রিটিশ ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশে জন্মগ্রহণ করেন এবং ১৯৬০-এর দশকে তাদের সন্তানদের সাথে পূর্ব আফ্রিকা থেকে যুক্তরাজ্যে চলে আসেন। সুনাকের বাবা যশবীর ছিলেন একজন খুবই সাধারণ মানুষ এবং মা ঊষা ছিলেন একজন ফার্মাসিস্ট যিনি স্থানীয় একটি ফার্মেসি চালাতেন।

উইকিপিডিয়া লিখেছে, ছাত্র জীবনে সাউদাম্পটনে থাকাকালীন এক গ্রীষ্মের ছুটিতে সাউদাম্পটনেরই একটি রেস্তোরাঁয় তাকে টেবিলের জন্য বহু সময় অপেক্ষা করতে হয়েছিল।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT