1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
‘খাসি সেং কুটুস্নেম’ - মুক্তকথা
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৫:২৬ অপরাহ্ন

‘খাসি সেং কুটুস্নেম’

বিশেষ সংবাদদাতা॥
  • প্রকাশকাল : শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৩৪৬ পড়া হয়েছে

মৌলভীবাজারে ‘সিলেট বৃহত্তর আদিবাসী ফোরাম’র ২৫ বছর পূর্তি উৎসব পালিত

নানা আয়োজনে পালিত হয়েছে সিলেট বৃহত্তর আদিবাসী ফোরামের ২৫ বছর পূর্তি উৎসব। এ উপলক্ষে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জির মাঠে অনুষ্ঠিত হয় বর্ষ বিদায় উৎসব খাসিয়াদের ঐতিহ্যবাহী ‘খাসি সেং কুটুস্নেম’ ও আদিবাসী সাধারণ সভা।

বৃহস্পতিবার(২৩ নভেম্বর) বর্ণাঢ্য আয়োজনে বৃহত্তর সিলেটের খাসিয়া পুঞ্জির প্রধানদের সাথে মতবিনিময়, আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সভা, আলোচনা সভা ও খাসি সম্প্রদায়ের নানা ধরণের খেলাধূলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও খাসিয়া নৃত্যের মাধ্যমে মাগুরছড়া খেলার মাঠে এ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এ উৎসবের মাধ্যমে তাদের বিলুপ্ত প্রায় সংস্কৃতি ও খেলাধূলাকে তুলে ধরা হয়।

দুপুর ১২টায় অনুষ্ঠান শুরু হলেও মূল পর্ব শুরু হয় বেলা ২টায়। এই উৎসবের মধ্য দিয়ে তারা পুরোনো বছরকে বিদায় দিয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানায়। মাগুরছড়া ফুটবল মাঠের একপ্রান্তে বাঁশের খুঁটির উপর প্রাকৃতিক পরিবেশে নারিকেল গাছের পাতার ছাউনী দিয়ে আলোচনা সভার মঞ্চ তৈরি করা হয়। এ মঞ্চে বৃহত্তর সিলেট আদিবাসী ফোরামের কো-চেয়ারম্যান ও মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জি প্রধান জিডিসন প্রধান সুচিয়াং এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন।

লাউয়াছড়া খাসিয়া পুঞ্জি প্রধান ফিলা পত্মীর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সঞ্জয় চক্রবর্তী, বাংলাদেশ মণিপুরি সমাজ কল্যাণ সমিতির সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আনন্দ মোহন সিনহা প্রমুখ।

খাসিয়া আদিবাসী ভাষায় তদের নিজস্ব বর্ষপুঞ্জি হিসেবে বছরের শেষ দিন ২৩ নভেম্বর ‘খাসি সেং কুটুস্নেম’। খাসিয়া আদিবাসী ভাষায় এ অনুষ্ঠানটি হচ্ছে ‘খাসি সেং কুটুস্নেম’। ঐতিহ্যবাহী ‘খাসি সেং কুটুস্নেম’ উৎসব (বর্ষ বিদায়) উপলক্ষে মাগুরছড়া পুঞ্জিুর মাঠে বৃহস্পতিবার উৎসবের আমেজে উৎসবে মিলিত দেশব্যাপী ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা খাসিয়াদের পরিবার। বর্ণিল সাজে সজ্জিত হয়ে খাসিয়া সম্প্রদায়ের ছেলে মেয়েরা উৎসবে আনন্দে মেতে উঠে।

আদিবাসী খাসিয়াদের বর্ষবিদায় উৎসবের মূল আকর্ষণ ঐহিত্যবাহী খাসি পোশাক পরে মেয়েদের নাচ-গান, তৈল যুক্ত একটি বাঁশে উঠে উপরে রাখা মুঠোফোন গ্রহণ, দু’টি পুকুরে বড়শী দিয়ে মাছ শিকার, তীর ধনুক খেলা, গুলতি চালানোসহ বিভিন্ন ধরণের খেলাধুলা ও তাদের নিজস্ব ভাষাতে গান গেয়ে অতিথিদের আনন্দ দেওয়া হয়। বিশাল জায়গা জুড়ে মেলাসহ ছিল নানা আয়োজন।

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জির মাঠে মাগুরছড়া পুঞ্জির ইয়োথ ক্লাবের উদ্যোগে খাসিয়া সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী বর্ষবিদায় ও বর্ষবরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বৃহত্তর সিলেটে প্রায় ৮০টির মতো খাসিয়া পুঞ্জি রয়েছে। প্রায় প্রত্যেকটি খাসিয়া পুঞ্জির খাসিয়ারা কমলগঞ্জ উপজেলার মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জির ‘খাসি সেং কুটুস্নেম’ অর্থাৎ বর্ষবরণ ও বিদায় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

খাসিয়া সম্প্রদায়ের পাশাপাশি এই বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে বাঙালি ও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষসহ দেশী-বিদেশী পর্যটকরা অংশগ্রহণ করেন। বর্ষপুঞ্জি অনুযায়ী ১২৪তম বর্ষকে বিদায় ও ১২৫তম বর্ষকে বরণ করে নেয় খাসিয়া জনগোষ্ঠী। ব্রিটিশ শাসন আমল থেকে ভারতের মেঘালয় রাজ্যে ২৩ নভেম্বর খাসি বর্ষ বিদায় ‘খাসি সেং কুটুস্নেম’ পালন করা হয়। ২৪ নভেম্বর শুক্রবার শুরু হবে খাসি বর্ষ বরণ।

মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জি প্রধান জিডিসন প্রধান সুচিয়াং বলেন, সরকারের কাছে আমাদের প্রত্যাশা সাংবিধানিক স্বীকৃতি এবং আদিবাসীদের অধিকার বাস্তবায়ন। তিনি আরও বলেন, ঐতিহ্যবাহী ‘খাসি সেং কুটুস্নেম’ উৎসব পালনের মাধ্যমে খাসিয়া জনগোষ্ঠীর বর্ণিল সংস্কৃতির সৌরভ বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়ুক।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT