1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
গভীর কর্তৃত্ববাদের দিকে তুরস্ক - মুক্তকথা
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৫:২৩ অপরাহ্ন

গভীর কর্তৃত্ববাদের দিকে তুরস্ক

সংবাদদাতা
  • প্রকাশকাল : বৃহস্পতিবার, ২৮ জুলাই, ২০১৬
  • ১০৮৯ পড়া হয়েছে

erdogan হারুনূর রশীদ: বৃহস্পতিবার ২৮শে জুলাই ২০১৬।।

তুরস্কে গত শুক্রবারের ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানের পর আজ অবদি তুর্কি নৌ অধিনায়ক ‘ভেসেল কচেলে’ কোন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেননি। এই সাথে তুর্কি নৌবাহিনীর বেশ কয়েকটি জাহাজ এখনও একধরনের নিখোঁজ রয়েছে। ব্যর্থ অভ্যুত্থান চেষ্টার পর এসব নৌজাহাজ, কেন্দ্রের সাথে কোন যোগাযোগ করেনি। বৃটেনের “দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট” এমন খবরই দিয়েছে। হুবহু একই ধরনের খবর দিয়েছে অন্যান্য পত্রিকাও। এসব সংবাদে পাওয়া যায়, তুরস্কের মোট ১৪টি সামরিক জাহাজ কৃষ্ণ সাগর কিংবা আয়ান সাগরে কর্তব্যরত আছে যারা অভ্যুত্থান ঘটনার পর প্রথানুসারে প্রধান নৌকেন্দ্রের সাথে যে যোগাযোগ করার কথা আজ অবদি তা করেনি। এমনকি কোনরূপ যোগাযোগই করেনি কিংবা কেউ ফিরেও আসেনি। স্বভাবতঃই স্বার্থ সংশ্লিষ্ট যোগাযোগ রক্ষাকারী বিভিন্ন মহলে ঘটনাটি একটি প্রশ্ন হয়ে দেখা দিয়েছে যে ওইসব জাহাজ ও তাদের কমান্ডার কি পেছন থেকে এই অভ্যুত্থানের কলকাটি নেড়েছিলেন?
সন্দেহ করা হচ্ছে যে এসব জাহাজ গ্রীসের কোন বন্দরে নোঙ্গরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছে। কারণ অভ্যুত্থানের পরের দিন শনিবার ৮জন তুর্কি সামরিক কর্মকর্তা একটি হেলিকপ্টার নিয়ে গ্রীসে আশ্রয় প্রার্থনা করে।
তুর্কির সরকার পরিচালিত সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে যে ব্যর্থ অভ্যুত্থানের সাথে সম্পর্কের সন্দেহে ৮৫জন তুর্কি জেনারেল ও এডমিরালকে আটকাদেশ দিয়েছে তুর্কি আদালত এবং ডজন খানেককে এখনও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। নিয়মানুসারে যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের মধ্যে রয়েছেন প্রাক্তন বিমান বাহিনীর প্রধান কমান্ডার জেনারেল একিন ওজতার্ক যাকে এই অভ্যুত্থানের আসল নেতা বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। আর একজন জেনারেল আদেম হুদুদি যিনি তুর্কি “সেকেন্ড আর্মি”র প্রধান এবং সিরিয়া, ইরাণ ও ইরাক থেকে সম্ভাব্য বিপদ মোকাবেলার দায়িত্বে নিয়োজিত, তাকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সেই সাথে কয়েক হাজার সৈনিককেও অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার সাথে জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এদের মধ্যে ২০৮জন সরকার সমর্থক ও ২৪জন অভ্যুত্থান সংঘটককে হত্যা করা হয়েছে।

তুর্কি সরকার, আমেরিকায় আশ্রিত ইমাম ফেতুল্লা গুলেনকে এই অভ্যুত্থানের অপর নেতা বলে অভিহিত করে আসছে সেই প্রথম থেকেই এবং বিচারের জন্য তাকে ফেরৎ দিতে আমেরিকাকে বলেছে। অভ্যুত্থান চেষ্টার সাথে জড়িত সন্দেহে হাজার হাজার বিচার বিভাগীয় ও স্বরাস্ট্র মন্ত্রনালয় কর্মিকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

কর্ণেল বিশ্ববিদ্যালয়ের “উসমান ও তুর্কি অধ্যয়ন সূচক” এর পরিচালক মোস্তফা মিনাওয়ি বলেছেন যে এই অভ্যুত্থান প্রেসিডেন্ট এরদোগানের জন্য একটি উপহার যা তিনি বিরুদ্ধবাদি ভিন্ন মতাবলম্বিদের বিরুদ্ধে ব্যবহার করে গভীর কর্তৃত্ববাদের দিকে ডুবন্ত তুর্কিকে আরো গভীরে নিয়ে যেতে সক্ষম হবেন।

মৃত্যুদন্ড পুণঃকার্যকর হলে ইউরোপীয়ান ইউনিয়নে তুরস্ক যোগ দিতে পারবে না বলে ইইউ হুমকি দিয়েছে। ইইউ বিদেশনীতি প্রধান ফেডেরিকা মগেরিনি, জন কেরীর সাথে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন যে কোন কারণেই এ অভ্যুত্থান দেশটিকে তার মৌলিক অধিকার ও আইনের শাসন থেকে দূরে নিয়ে যাবার কারণ হতে দেয়া যাবে না এবং এ বিষয়ে আমরা খুবই সতর্ক থাকবো। কেরী বলেছেন, আইনের শাসন ও গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান সমূহের উচ্চ মান তুর্কিকে অবশ্যই রক্ষা করতে হবে।

তুর্কি প্রধান মন্ত্রী, প্রায় ৩০ লক্ষ সরকারী কর্মচারীর বাৎসরিক ছুটি স্থগিত করেছেন। ১৩০টি মিডিয়া আউটলেট বন্ধ করা হয়েছে।
ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের একজন কমিশনার বলেছেন যে অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার আগ থেকেই তুর্কি সরকারের গ্রেপ্তারি তালিকা তৈরি ছিল।
আমেরিকার জনকেরি বলেছেন তুরস্কের এই অভ্যুত্থান ঘটনা দেশটির নেটো সদস্যপদের জন্য একটি হুমকি সৃষ্টি করতে পারে।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT