1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
গর্জন গাছ চুরি, বোমা নিস্ক্রিয় করণ, যোগাযোগ বন্ধ এবং সম্প্রদায় ভিত্তিক পর্যটন - মুক্তকথা
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ন

গর্জন গাছ চুরি, বোমা নিস্ক্রিয় করণ, যোগাযোগ বন্ধ এবং সম্প্রদায় ভিত্তিক পর্যটন

কমলগঞ্জ(মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি॥
  • প্রকাশকাল : বৃহস্পতিবার, ৬ জুন, ২০২৪
  • ৬৯ পড়া হয়েছে

সরকারি ভূমি হতে শতবর্ষী গর্জন গাছ কেটে চুরি

পাচারের সময় ট্রাকসহ ২ জন আটক

 

উদ্ধারকৃত গাছের একটি খন্ডাংশ চুরির সময় বনবিট কর্মকর্তার নেতৃত্বে ট্রাকসহ ২ জনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। শনিবার ভোরে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর-ভানুগাছ সড়কের হালিমা বাজার এলাকা থেকে আটক করেন কমলগঞ্জ উপজেলার রাজকান্দি রেঞ্জের কামারছড়া বনবিট কর্মকর্তা।

জানা যায়, গত ১৭ মে শুক্রবার বিকালে কমলগঞ্জ উপজেলার সুনছড়া চা বাগানের ১৬ নম্বর সেকশনের পাশর্^বর্তী কালিছলি এলাকায় ১ নম্বর খাস খতিয়ানভূক্ত ৮নং দাগের ভূমি হতে সম্পূর্ণ অবৈধভাবে শতবর্ষী বিশাল গর্জন গাছ কর্তনের ঘটনা ঘটে। চোর চক্র গাছ কেটে খন্ডাংশ করে কয়েকটি খন্ডাংশে ৮০ ঘনফুটের গোলকাঠ চুরি করে। পরে সংবাদ পেয়ে বনবিভাগ ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর যৌথ উদ্যোগে অবশিষ্ট ১২৮ দশমিক ১৫ ঘনফুট গোলকাঠের খন্ডাংশ উদ্ধার ও জব্দ করা হয়।

এ ঘটনায় কমলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা কমলেন্দু ভট্টাচার্য্য বাদী হয়ে কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় আলীনগর ইউনিয়নের পূর্ব চিৎলীয়া গ্রামের মকবুল মিয়া (৪৫), রশিদ উল্ল্যা (৪০), ইব্রাহিম উল্ল্যা (৪২) ও সাকের আলী (২২) কে আসামী করা হয়।

গাছের খন্ডাংশ উদ্ধার ও জব্দের ১৪ দিনের মাথায় শনিবার (১ জুন) ভোরে জব্দকৃত গর্জন গাছের একটি বিশাল খন্ডাংশ পাচারের খবর পেয়ে কামারছড়া বনবিটের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আহমদ আলী ট্রাকসহ (নং ঢাকা মেট্রো ড-১১-১৪৪৯) কমলগঞ্জ পৌরসভার বড়গাছ এলাকার ইলিয়াস মিয়ার ছেলে মো. জলিল মিযা (৩৫) ও মনর মিয়ার ছেলে দেলোয়ার হোসেন (৩৪) কে আটক করে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়িতে সোপর্দ করেন।

এ ব্যাপারে কামারছড়া বনবিটের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আহমদ আলী বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার ভোরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বৃহদ খন্ডাংশ বোঝাই ট্রাকসহ ২ জনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করি। তিনি আরও বলেন, গত ১৭ মে সরকারি ভূমি থেকে শতবর্ষী গাছ চুরির খবর পাওয়ার সাথে সাথেই রাজকান্দি রেঞ্জ কর্মকর্তা তৌহিদুল ইসলাম ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) রইছ আল রেজুয়ানকে জানাই। পরে রেঞ্জ কর্মকর্তার উপস্থিতিতে যৌথভাবে কিছু খন্ডাংশ উদ্ধার করা হয়। তবে এর আগেই ৮০ ঘনফুটের মতো মূল্যবান খন্ডাংশ চুরি হয়েছে। গাছটির মূল্য প্রায় ৩ লক্ষ টাকা হতে পারে।

কমলগঞ্জ থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস.আই মহাদেব বাছার জানান, গাছ চুরির বিষয়ে পূর্বে মামলা রয়েছে। দু’জনকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরন করা হবে।

এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রইছ আল রেজুয়ান বলেন, ইতিপূর্বে গাছের খন্ডাংশ উদ্ধার ও জব্দের পর থানায় মামলা দেয়া হয়েছে। ফের গাছের খন্ডাংশ চুরির সময়ে আটকদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


 

দলই চা বাগানে মর্টার শেল নিস্ক্রিয় করল সেনাবাহিনী

 

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার সীমান্তবর্তী মাধবপুর ইউনিয়নের দলই চা বাগানে সাত্তার মিয়ার বাড়িতে মাটির কুড়ার সময় পাওয়া একটি ৮২ এমএল মর্টারশেল বিস্ফোরণের মাধ্যমে নিস্ক্রিয় করেছে সেনাবাহিনী। সিলেট ক্যান্টনমেন্টের ক্যাপ্টেন রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে ও কমলগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক জিয়াউল ইসলামের উপস্থিতিতে বুধবার দুপুর ১ ঘটিকার সময় নিরাপদ স্থানে শেলটি বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিস্ক্রিয় করা হয়। এ সময় নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করে সেনাবাহিনী, পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

দলই চা বাগানের বাসিন্দা সাত্তার মিয়া জানান, গত ২৭ মে নিজ বাড়ির পিলার করতে গিয়ে মাটি কুড়ার সময় একটি মর্টারশেল পাওয়া যায়। পরে বিষয়টি স্থানীয় দলই বিজিবি ক্যাম্পে অবহিত করা হয়। বিজিবি’র পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় ৯দিন ধরে অরক্ষিত অবস্থায় মর্টারশেলটি সাত্তার মিয়ার বাড়িতে ছিল। অবশেষে ঘটনার ৯দিন পর বুধবার দুপুরে সিলেট ক্যান্টনমেন্টের ক্যাপ্টেন রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে ও কমলগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক জিয়াউল ইসলামের উপস্থিতিতে বুধবার দুপুর ১ ঘটিকার সময় নিরাপদ স্থানে শেলটি বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিস্ক্রিয় করা হয়।

কমলগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মো. আব্দুর রাজ্জাত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় এটি ট্যাঙ্ক ধংসকারী একটি মর্টার শেল। সে সময় এটি বিস্ফোরিত হয়নি।


 

রাস্তায় গাছ পড়ে কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়কে

দুই ঘণ্টা যোগাযোগ বন্ধ

টানা বৃষ্টির কারণে বৃহস্পতিবার দুপুরে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের ভেতর কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়কের ধারে বেশ কিছু গাছ শিকড়সহ উপড়ে পড়ে। এ কারণে কমলগঞ্জের সঙ্গে শ্রীমঙ্গলের সড়ক যোগাযোগ দুই ঘণ্টা বন্ধ থাকে। ফায়ার সার্ভিস, বন্যপ্রাণী বিভাগ ও পল্লী বিদ্যুতের সদস্যদের সহযোগীতার কারণে বিকাল ৩টায় সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়। গাছ পড়ে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের শ্রীমঙ্গল রেঞ্জ কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম।

 

 

টানা কয়েকেদিনের বৃষ্টির কারণে কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের ভেতর মাগুরছড়া গ্যাস কুপ ও লাউয়াছড়া উদ্যানের প্রধান গেইট এলাকায় কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়ক ধারে বেশ বড় একটি গাছ শিকড়সহ উপড়ে পড়ে। এর মধ্যে দুটি বড় গাছ সড়কের ওপর পড়ে থাকার কারণে এই পথে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার বেলা ১টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত সড়ক যোগাযোগ বন্ধ ছিল। গাছ পড়ে বৈদ্যুতিক তারও ছিঁড়ে পড়েছিল। বিদ্যুৎকর্মী, বন বিভাগ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পড়ে থাকা গাছ কেটে সরানোর পর বিকাল ৩টায় এই সড়কে যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়।

বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম মাগুরছড়ায় গাছ পড়ে যানবাহন চলাচল দুই ঘণ্টা বন্ধ থাকার খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘গাছটি অনেক বড়। সেটা কেটে রাস্তার এক পাশে রাখা হয়েছে। বৃষ্টির জন্য কাজ ভালোভাবে করা যাচ্ছেনা। ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ বিভাগ ও আমাদের বন বিভাগের সদস্যরা মিলে রাস্তার এক পাশ বন্ধ রেখে গাছগুলো সরানোর পর যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। শুক্রবার অতিরিক্ত লোকজন এনে পুরা রাস্তা থেকে গাছ সড়িয়ে ফেলে স্বাভাবিক করা হবে।

গত ২৫মে থেকে হালকা বৃষ্টি হলেও বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে কমলগঞ্জে টানা ভারী বৃষ্টি শুরু হয়। মাঝে মাঝে ১০ থেকে ১৫ মিনিট থামলে আবার বৃষ্টি শুরু হয়। এর ফলে এ উপজেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ছাত্র-ছাত্রীদের উপস্থিতি খুবই কম ছিল। খেটে খাওয়া মানুষজন ঘরের বাইরে বের হতে পারেননি। বৃষ্টির কারণে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। কমলগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গাজী সালাহউদ্দিন বলেন, বিদ্যালয়ে পরীক্ষা চলছে। বৃষ্টির কারণে শিক্ষার্থী উপস্থিতি কম ছিল। দুর-দুরান্তের শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসেনি। এদিকে রাস্তায় গাছ পড়ে ভোগান্তিতে পড়েন পথচারিরা। এসময় পথচারি রাজ আবেদীন রাজু জানান, রাস্তা বন্ধ থাকায় দুই ঘন্টার উপরে আটকে ছিলাম।


 

 

মণিপুরি সম্প্রদায় ভিত্তিক

পর্যটন সম্প্রসারণ বিষয়ক মতবিনিময় সভা

 

 

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে মণিপুরি কমিউনিটি বেইজড ট্যুরিজম পরির্দশন এবং সম্প্রসারণ বিষয়ক মতবিনিময় সভা গত শনিবার (২৫ মে) বিকাল ৪টায় ভানুবিল মাঝেরগাঁও কমিউনিটি বেইজড ট্যুরিজম এর হলরুমে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার (অতিরিক্ত সচিব) আবু আহমদ ছিদ্দীকী, এনডিসি।

মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক ড. উর্মি বিনতে সালামের সভাপতিত্বে ও কবি হামোম সানাতন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রইছ আল রেজুয়ান, কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাইফুল আলম, আদমপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবদাল হোসেন প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক শান্ত কুমার সিংহ। অনুষ্ঠানে ভানুবিল মাঝেরগাঁও কমিউনিটি বেইজড ট্যুরিজম এর সভাপতি নিরঞ্জন সিংহসহ উপকারভোগী সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন। পরে অতিথিরা কমিউনিটি বেইজড ট্যুরিজমের ঘর পরিদর্শন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT