1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
দক্ষিন এশিয়ায় শান্তি, স্থিতির পাশাপাশি উন্নয়ন গড়েতোলাই ছিল বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য - মুক্তকথা
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:৪১ পূর্বাহ্ন

দক্ষিন এশিয়ায় শান্তি, স্থিতির পাশাপাশি উন্নয়ন গড়েতোলাই ছিল বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য

সংবাদদাতা
  • প্রকাশকাল : বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৮
  • ২২৩ পড়া হয়েছে

লণ্ডন।। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শহীদ দিবস পালনের সভায় বক্তাগন বলেন পুরো দক্ষিন এশিয়ায় শান্তি, স্থিতি ও উন্নয়ন প্রতিষ্ঠাই ছিল বঙ্গবন্ধু শেখমুজিবের লক্ষ্য। চোখে পড়ার মত স্বল্পসময়ে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করেন। তারা বলেন বঙ্গবন্ধু আজ বেঁচে থাকলে তারই কন্যার নেতৃত্বে দেশের এ অর্জনে গর্ববোধ করতেন।
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের ৪৩তম শাহাদৎ বার্ষিকীতে নয়াদিল্লীস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন আয়োজিত “দক্ষিন এশিয়া অঞ্চলের সমাজে শান্তি, স্থিতিশীলতা ও উন্নয়নই ছিল বঙ্গবন্ধুর মূল দর্শন” শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তাগন উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন।
এ উপলক্ষে হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী বলেন, ভারত-বাংলাদেশ এখন সম্পর্কের এক সোনালী সময়ে হাটছে। আর এই সম্পর্কের ভীত স্থাপন করে গেছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
উপ হাইকমিশনার এটিএম রকেব-উল-হকের সঞ্চালনায় চালিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এসডি মুনি, দক্ষিন এশিয়া বৈদেশিক সংবাদদাতা ক্লাবের সভাপতি ভেঙ্কট নারায়ন এবং দক্ষিন এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি ড. কভিতা শর্মা।

খুবই আবেগ মথিত পরিবেশের ভেতর দিয়ে দিল্লী হাইকমিশন জাতীয় শোক দিবস পালন করে। মনের গভীর আবেগ ও বেদনাপ্লুত মনে শ্রদ্ধা জানায় ১৫ই আগষ্টের সেই নির্মম হত্যাকাণ্ডে নিহত বঙ্গমাতা শেখ ফজিলতুন্নেছা মুজিব, তাদের ৩ সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল এবং শিশু শেখ রাসেল ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের প্রতি।
সকালের দিকে হাইকমিশনার মিশন অফিসে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে উত্তোলন করেন। হাইকমিশনের সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী ও তাদের পরিবারের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ মিশনের মৈত্রী হলে হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলীর সাথে মিলিত হয়ে বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ ছবিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন।
আলোচনার শুরুতেই জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে পাঠানো প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী এবং পররাষ্ট্র প্রতি মন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের বক্তব্য পাঠ করে শুনানো হয়। 
ওই কালো দিবসে বঙ্গবন্ধুসহ নিহত সকলের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়ারও আয়োজন করা হয়।
বঙ্গবন্ধুর জীবন ও অর্জন শীর্ষক একটি দালিলিক চলচ্চিত্র দেখানোর মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি করা হয়। এছাড়াও বাংলাদেশ হাইকমিশনের সহযোগীতায় নয়া দিল্লীর অভিজাত বহুভাষিক “ইণ্ডিয়া এ্যমপায়ার” ম্যাগাজিন “রিমেমবারিং বঙ্গবন্ধু” শিরোনামে তাদের একটি বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ করে যেখানে মলাটে বঙ্গবন্ধুর ছবিও ছাপা ছিল।
 এছাড়াও দৈনিক “ইণ্ডিয়ান এক্সপ্রেস” বঙ্গবন্ধুর উপর একখানা প্রবন্ধ প্রকাশ করে যা লিখেছেন স্বনামে ধন্য কূটনীতিক হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT