1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
পাকিস্তান একঘরে হয়ে আছে! - মুক্তকথা
বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন

পাকিস্তান একঘরে হয়ে আছে!

সংবাদদাতা
  • প্রকাশকাল : রবিবার, ৮ জানুয়ারী, ২০১৭
  • ৫৬১ পড়া হয়েছে

হারুনূর রশীদ।।

লন্ডন: রোববার, ২৩শে পৌষ ১৪২৩।। জঙ্গিবাদের মদদ দাতা দেশ হিসেবে সারা বিশ্বব্যাপী পাকিস্তান যত পরিচিত হয়ে উঠছে ততই দিন দিন একঘরে হয়ে পড়ছে। বিশেষকরে আমাদের এই উপমহাদেশে পাকিস্তান বড়ই একা। অন্তত উপমহাদেশের চলমান রাজনৈতিক ঘটনাবলী তারই সাক্ষ্য দেয়।

“ইউরি’ আক্রমন নিয়ে পাকিস্তান বিতর্ক করেছে। কিন্তু হলে কি হবে সারা বিশ্ব জানে এটি ঘটেছে। ইকোনমিক টাইমস একবার লিখেছিল যে ‘ইউরি’ বিষয়ে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট নেওয়াজ শরিফ কোনদিনই কৈফিয়ৎ তো দেবেই না দুঃখ প্রকাশও করবে না। বৃটেন কিংবা আমেরিকা বললেও পাকিস্তান তা করবে না।

ইউরি’র ওই আক্রমনের ঘটনা ভারতকে পাকিস্তানের আসল রাজনৈতিক চরিত্র দুনিয়ার সামনে তুলে ধরার বিশাল সুযোগ করে দেয়। ভারত করেছেও তাই। ইসলামাবাদে ওই সময় অনুষ্ঠিতব্য সার্ক বৈঠক থেকে ভারত বিরত থাকার ঘোষণা দেয়। বাংলাদেশও ভারতের মত একই পথ অনুসরণ করে। কারণ ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে ভারত পূর্বপাকিস্তানকে যে সহযোগীতা করেছিল পাকিস্তানের বিরুদ্ধে গিয়ে বাংলাদেশ কোনদিনই সেই বন্ধুত্বের বিজয় গাঁথা ভুলবে না, ভুলতেও পারে না। ভারতের সহায়তায়ই বাংলাদেশ মাত্র ৯মাসের মাথায় যুদ্ধে বিজয় অর্জন করে স্বাধীনতা লাভ করে। ফলে, বাংলাদেশও ওই সার্কবৈঠক বর্জন করে।

ভারত-বাংলাদেশের বর্জন দেখে ভারতের ঘনিষ্ট বন্ধুরাষ্ট্র ভূটান, নেপাল, আফগানিস্তান ও মায়ানমারও একই পথ ধরে। তারাও সার্কবৈঠক বর্জন করে। এরপর শ্রীলঙ্কাও তাদের উপস্থিতির বিষয়ে না বলে দেয়। এ ঘটনা খুবই স্পষ্টভাবে দক্ষিন এশিয়ায় পাকিস্তানকে একঘরে অবস্থায় ফেলে দেয়। শুধু তাই নয় এর পরের ঘটনা পাকিস্তানকে আরো আঘাত করে। যা আজও পাকিস্তান কাটিয়ে উঠতে পারেনি।

পাকিস্তান যদিও স্বীকার করেনি যে ভারত ‘সার্জিকেল ষ্ট্রাইক’ করেছে, কিন্তু বলেছে, ভারত ২জন পাকিস্তানী সৈনিককে হত্যা করেছে। বরং ভারত নিজেই বলেছে যে তারা বিবদমান জম্মু-কাশ্মির সীমান্তের বিভিন্ন সন্ত্রাসী ঘাঁটিতে ‘সার্জিকেল ষ্ট্রাইক’ করে প্রায় ১০জন সন্ত্রাসীকে হত্যা করেছে। পাকিস্তানের কথায় ধরে নেই যদি যে ভারত কোন ‘সার্জিকেল ষ্ট্রাইক’এ যায়নি; এমনিই সুযোগ পেয়ে দাদাগিরি ফলাচ্ছে; তা’হলে পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মাত্র ২জন সৈনিক হত্যার জন্য ভারতে পারমানবিক আঘাতের কথা কেনো বলেছিলেন? এই যোগ-বিয়োগ পাকিস্তান স্বীকার না করলেও দুনিয়ার বুঝতে বাকী থাকে না।

ওই সময় ভূটান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ সরকার, ভারতের প্রতি তাদের সমর্থনের কথা পূনর্ব্যক্ত করে বলেছিল যে এই সার্জিকেল আঘাতের প্রয়োজন ছিল। শুধু কি তাই, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী তখন বলেছিলেন যে যুদ্ধ যদি এড়ানো না-ই যায় তা’হলে আমরা ভারতের সাহায্যে সৈন্য দিতে প্রস্তুত আছি।

পাকিস্তানের জন্য সবচেয়ে বড় আঘাত আসলো তখন, যখন একটি দরখাস্তের মাধ্যমে পাকিস্তানকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ঘোষনা করে ওয়াশিংটনের হোয়াইট হাউস থেকে বলা হলো যে তারা সন্ত্রাসকে মদদ দিচ্ছে। এর পরেও আরো খারাপ অবস্থা দাড়ালো যখন দেখা গেল ওই দরখাস্তে ৬ লক্ষ মানুষ স্বাক্ষর দিয়েছে। যা, আমেরিকার কংগ্রেসে বিতর্ক করার জন্য কিংবা কোন বিল পাশ করার জন্য প্রয়োজনীয় স্বাক্ষরের ৬গুন বেশী ছিল।

এতে করে, দক্ষিন এশিয়ায় পাকিস্তানকে রাজনৈতিকভাবে কোমরভাঙ্গা একঘরে করে দেয় ভারত। সাথে সাথে অতি কৌশলে, একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র হিসেবে পাকিস্তানকে চিত্রিত করতে ভূটান, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের সহযোগীতা সহজেই আদায় করে নেয় ভারত। পাকিস্তান কিভাবে এই ভরা খাদ থেকে উঠে আসবে একমাত্র সময়ই তা বলতে পারবে।(কোড়া অনুসরণে অনুদিত)

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT