1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
বিলেতে বাঙ্গালী - মুক্তকথা
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০১:২২ পূর্বাহ্ন

বিলেতে বাঙ্গালী

বিশেষ প্রতিনিধি॥
  • প্রকাশকাল : মঙ্গলবার, ১২ মার্চ, ২০২৪
  • ৩১২ পড়া হয়েছে


মিলটনকেইনে দাফন সম্পন্ন
কমিউনিটি নেতা এলাইছ মিয়া মতিনের শেষ বিদায়

লন্ডন॥

ব্রিটেনে বাংলাদেশী কমিউনিটির সুপরিচিত মুখ বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব, প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, এলাইছ মিয়া মতিনকে শেষ বিদায় জানাতে ব্রিটেনের বিভিন্ন প্রান্থ থেকে অশ্রুসিক্ত নয়নে মিলটনকেইন শহরে তাঁর নামাজে জানাজায় উপস্থিত হয়েছিলেন বিভিন্ন শ্রেনী পেশার হাজারও মানুষ। এখানে উল্লেখ্য যে কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব এলাইছ মিয়া মতিন গেল ৭মার্চ ২০২৪ খৃঃ ওরপে ২৪ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, বৃহস্প্রতিবার,  লন্ডন সময় দুপুর এক ঘটিকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় অক্সফোর্ডের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। তিনি স্ত্রী, দুইপুত্র, ছয় কন্যা সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি দীর্ঘদিন যাবত মিলটন কেইন শহরে বসবাস করে আসছেন, তিনিই মিলটনকেইন শহরের প্রথম বাংলাদেশী বাসিন্দা। তার গ্রামের বাড়ী বৃহত্তর সিলেটের সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী শ্রীরামসী গ্রামে।

কিশোর বয়সে পরিবারের সাথে ব্রিটেনে অভিবাসী হওয়ার পর ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে একজন প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে প্রতিটি মিছিল মিটিংএ অগ্রসৈনিকের ভূমিকা পালন করেন। তিনি ছিলেন একজন প্রতিষ্টিত ব্যবসায়ী সেই সাথে একাধিক সামাজিক ,সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও কমিউনিটি সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত বাঙ্গালী সম্প্রদায়ের খাঁটী একজন দরদী নেতা।

 

যৌবনে এলাইচ মিয়া মতিন

 
যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ মিলটনকেইন শাখার সভাপতি, জগন্নাথপুর ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাষ্টের ফাউন্ডার ট্রাষ্ট্রি, বাংলাদেশ ক্যাটারারর্স এ্যাসোসিয়েন(বিসিএ) এর মিডল্যান্ড শাখার সাবেক সভাপতি, ব্রিটিশ বাংলাদেশ ক্যাটারারর্স এ্যাসোসিয়েশন(বিবিসিএ‘র) ফাউন্ডার ট্রাজারার, বাংলাদেশ ওয়েল ফেয়ার এ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্টাতা চেয়ারম্যান, দর্পন ম্যাগাজিন ও অনলাইন টিভি চ্যানেল দর্পন টিভি, বাংলাদেশ সেন্টার সহ অসংখ্য সংগঠনের সাথে তিনি সক্রিয়ভাবে সম্পৃক্ত ছিলেন। ছিলেন একজন দাতা। দেশে-বিদেশে বহু মসজিদ মাদ্রসায় রয়েছে তার আর্থিক অনুদান। যে গোরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়েছে এই গোরস্থানটি কিনতেও তার আর্থিক অনুদান রয়েছে।

গেল ১১ মার্চ সোমবার দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিটে মিলটনকেইনের এম.কে.এস. এ. কলিহল টারবাইস গার্ডেন জামে মসজিদ এ তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। তার নামাজে জানাজায় অন্যানের মধ্যে উপস্থত ছিলেন মিলটন কেইন আওয়ামীলগের নেতৃবৃন্দ, যুক্তরাজ্য বিএনপির উপদেষ্টা আব্দুল হামিদ চৌধুরী, ইউকে বাংলা রিপোটার্স ইউনিটির সদ্য সাবেক সভাপতি বিশিষ্ট সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী, জগন্নাথপুর ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাষ্টের সাবেক সেক্রেটারী আঙ্গুর আলী, তার প্রতিষ্ঠিত সংগঠন বিবিসিএর ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট শাহানূর খান, বর্তমান প্রেসিডেন্ট মেয়র সেলিম চৌধুরী, সেক্রেটারী তফজ্জুল মিয়া, সাবেক প্রেসিডেন্ট কাউন্সিলার শামসুল ইসলাম সেলিম, ট্রেজারার এম.এ, মতিন ও অন্যান্যরা।

এছাড়া তার আত্মীয়স্বজন সহ তার ঘনিষ্ট বন্ধু কাজি আছাবুর রহমান সহ বিভিন্ন সংগঠন ও কমিউনিটির সর্বস্থরের মানুষ। বিকেল তিনটায় তাঁকে মিলটনকেইনের সেলব্রন এভিনিউ মিমিট্রি বেক্সলী এম.কে.-৩৫বিএস্ক এ সমাহিত করা হয়।

 

লন্ডন সফররত ছায়াতল কর্মকর্তাদের সাথে

স্বদেশ-বিদেশ কর্তৃপক্ষের মত বিনিময়

লন্ডন

 

 

লন্ডন সফররত ছায়াতল বাংলাদশের কর্মকর্তাদের সম্মানে স্বদেশ-বিদেশ কর্তৃপক্ষের মত বিনিময় ও নৈশভোজ অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ৮ মার্চ গ্যানসিলের একটি টার্কিশ রেষ্টুরেন্টে। ছায়াতল বাংলাদেশের ট্রেজারার ইশরাত জাহান জয়া ও ভাইসচেয়ার তৌহিদুন নাহার দিপ্তি এক সংক্ষিপ্ত সফরে ইংল্যান্ডে রয়েছেন। ৮ মার্চ বিকেলে প্রতিনিধি দলের সদস্যরা ব্রিটেনের জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল ইসলাম চ্যানেলে একটি লাইভ অনুষ্টানে যোগদেন। ইসলাম চ্যানেলে পৌঁছালে তাদের স্বাগত জানান টিভি উপস্থাপক ও নাট্য ব্যক্তিত্ব নূরুল ইসলাম। এর পর প্রতিনিধি দলের সদস্যরা স্বদেশ-বিদেশ কর্তৃপক্ষের আমন্ত্রনে মতবিনিময় ও নৈশভোজে যোগদেন।

মতবিনিময় অনুষ্টানে অংশ নেন ইউকে-বাংলা রিপোটোর্স ইউনিটির সভাপতি আনসার আহমেদ উল্লাহ, ব্রিটেনের বাংলা মিডিয়ার জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী, বিশ্ব বাংলা নিউজ টুয়েন্টি ফোরের এডিটর শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল, চ্যানেল এস টিভির রিপোর্টার রেজাউল করিম মৃধা, বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ইঞ্জিনিয়ার আবুল হাসান, স্বদেশ-বিদেশ নির্বাহী সম্পাদক বাতিরুল হক সর্দার ও কলামিষ্ট শাহ রুমী হক।

মতবিনিময় অনুষ্টানে ছায়াতলের সদস্যরা জানান জন্মলগ্ন থেকে সংগঠনিটি অসহায় এবং পথশিশুদের নিয়ে কাজ করে আসছে। এসব শিশুদের শিক্ষার পাশাপাশি তাদের কর্ম সংস্থানের ব্যবস্থা করতে কারিগরি প্রশিক্ষনও দেয়া হয়। যাতে একটি শিশু স্বাবলম্বি হতে পারে। কর্মকর্তারা জানান ঢাকায় বর্তমানের তাদের চারটি ক্যাম্পাসে ২৫০জন শিশু রয়েছে। ৬০ জন স্বেচ্ছাসেবক কাজ করছেন।

তারা বলেন সমগ্র বাংলাদেশে হাজার হাজার অনাথ পথশিশু রয়েছে। আমাদের সকলকে এদের পূনর্বাসনে এগিয়ে অসতে হবে। এই সংগঠনের সাথে যারা জড়িত সকলেই কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থি। ছায়াতল কর্মকর্তাদের হাতে অতিথিদের সাথে নিয়ে স্বদেশ-বিদেশের সম্মাননা ক্রেষ্ট তুলে দেন শাহ রুমি হক ও বাতিরুল হক সরদার।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT