1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
ব্যহত হচ্ছে চিকিৎসা, কৃষি জমি কাটায় জরিমানা ও বাংলা ইংগিত ভাষা দিবস পালিত - মুক্তকথা
বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন

ব্যহত হচ্ছে চিকিৎসা, কৃষি জমি কাটায় জরিমানা ও বাংলা ইংগিত ভাষা দিবস পালিত

সংবাদদাতা ও কমলগঞ্জ প্রতিনিধি॥
  • প্রকাশকাল : বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১০৩ পড়া হয়েছে

কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

জনবল সংকটে ব্যহত হচ্ছে চিকিৎসা সেবা

দুই যুগ ধরে বন্ধ এক্সরে মেশিন ভোগান্তিতে সেবা গ্রহীতা

টেকনিশিয়ান সংকটে প্রায় দুই যুগ ধরে বন্ধ রয়েছে মৌলভীবাজার জেলার হাওর ও চা বাগান বেষ্ঠিত কুলাউড়া উপজেলার ৫০ শয্যাবিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক্সরে মেশিন।দন্ত বিশেষজ্ঞ না থাকায় বন্ধ রয়েছে দঁতের চিকিৎসা,গাইনি সার্জারী না থাকায় র্দীঘ দিন ধরে বন্ধ রয়েছে প্রসূতি মায়েদের চিকিৎসা সেবা। এতে উপজেলার প্রায় চার লাখ মানুষ ভোগান্তি পোহাচ্ছেন। বিশেষ করে ভোগান্তি পোয়াতে হচ্ছে উপজেলায় হাওর পারের দিন মজুর মৎস্য জিবি ও চা বাগানে খেটে খাওয়া চা-শ্রমিক সহ নিন্ম আয়ের মানুষরা।এখানকার মানুষের চিকিৎসা সেবার একমাত্র ভরসা কুলাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। এরকম একটি জনগুরুত্বপূর্ণ হাসপাতালে ব্যবস্থাপনার অভাবে নষ্ট হয়ে পড়ে আছে একমাত্র এক্সরে মেশিন সহ ভিবিন্ন যন্ত্রাংস। বিশেষ করে এক্সরে মেশিনটি ঠিক করতে কর্তৃপক্ষের ঘুম ভাঙেনি দীর্ঘ২৫বছরেও।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালে নির্ধারীত জুনিয়র কনসালটেণ্ট এর পদ রয়েছে ১০টি এর মধ্যে নিযোগ আছে ৫ জনের। নিযোগ প্রাপ্ত ৫ জনের মধ্যে ২ জন আন্যত্র ডেপোটেশনে রয়েছেন ।মেডিকেল অফিসার ২৭ জনের মধ্যে রয়েছেন ১১ জন,নার্স ৩০ জনের মধ্যে রয়েছেন ২৬ জন,হেলথ এসিস্টেণ্ট ৬৫ জনের মধ্যে রয়েছেন ৩১ জন,পরিচ্ছন্ন কর্মী ৫ জনের মধ্যে রয়েছেন ৩ জন। ৩জনের মধ্যে ১ জন রয়েছেন অন্যত্য ডেপোটেশনে। প্রতিদিন গড়ে আউটডোরে সেবা নেয়া রোগীর সংখ্যা প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ জন, ইনডোরে ভর্তি রোগী ৪৫-৫০ জন এবং জরুরি বিভাগে সেবা নেয়া রোগীর সংখ্যা প্রায় ২০০ জন। সব মিলিয়ে প্রতিদিন গড়ে ৫০০ থেকে ৬০০ রোগী স্বাস্থ্যসেবা নিতে আসেন। তাদের মধ্যে অনেকের এক্সরে করানোর প্রয়োজন পড়ে। কিন্তু অনন্যপায় হয়ে জেলা সদর কিংবা প্রাইভেট প্রতিষ্টানে গিয়ে প্রয়োজনীয় এক্সরে সেবা নিতে হয়। এতে কুলাউড়া উপজেলার মানুষের অর্থ ও সময় উভয় বেশি খরচ করতে হয়।

সেবা নিতে আসা রোগীরা জানান, সরকারিভাবে এক্সরে সেবা বন্ধ থাকায় বাধ্য হয়ে ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোয় এক্সরে করাতে হয়। এতে প্রতিটা এক্সরে বাবদ গুনতে হয় প্রায় চার-পাঁচশ টাকা। তারা হাসপাতালে দ্রæত এক্সরে সেবাটি চালু করে সাধারণ মানুষের সরকারি সেবাপ্রাপ্তি নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ফেরদৌস আক্তার বলেন, আমি যোগদানের পর থেকে এক্সরে মেশিনটি বন্ধ দেখে আসছি। তবে টেকনিশিয়ান না থাকার কারণে এই সেবাটি বন্ধ রয়েছে।হাসপাতালে টেকনিশিয়ান নিয়োগ দেওয়ার জন্য নিয়মিত উধ্বর্তন কতৃপক্ষের কাছে চাহিদা পত্র পাঠানো হয়েছে।আশা করি এর মধ্যে টেকনিশিয়ান নিয়োগের মাধ্যমে সমস্যাটি সমাধান হবে।সীমিত জনবল নিয়ে কোন রকম সেবা চালিয়ে যাচ্ছি।

 

কমলগঞ্জে কৃষি জমির মাটি কাটার দায়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর ইউনিয়নের শিংরাউলী গ্রামে কৃষি জমির মাটি কাটার দায়ে ইদ্রিস নামের এক ব্যক্তিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। গত বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় অভিযান পরিচালনা করে এ জারিমানা করা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্যাট জয়নাল আবেদীন। এ সময় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ রইছ আল রেজুয়ান উপস্থিত ছিলেন। অভিযুক্ত ব্যক্তি আবাদি জমির মাটি কেটে বসত ভিটে ভরাট করছিল।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্যাট জয়নাল আবেদীন বলেন, কৃষি জমি সুরক্ষা ও অনাবাদি জমি আবাদের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা রয়েছে। সে মোতাবেক বিভিন্ন উদ্যোগের পাশাপাশি কৃষি জমির টপসয়েল কর্তনের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। সংশ্লিষ্ট সবাইকে কৃষি জমি সুরক্ষায় আন্তরিক হওয়ার অনুরোধ করেন তিনি।

 

বাংলা ইংগিত ভাষা দিবসে পদযাত্রা ও সভা

ইশারা যদিও বাংলা শব্দ নয় তারপরও “বাংলা ইশারা ভাষার প্রসার করি, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলি” এ রূপ একটি বিষয় নিয়ে মৌলভীবাজার জেলায় পালিত হলো বাংলা ইশারা ভাষা দিবস।

গতকাল বুধবার(৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে দিবসটি উপলক্ষে মৌলভীবাজার জেলা কালেক্টরেট ভবন প্রাঙ্গণ থেকে র‌্যালি শুরু হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

 

জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, জেলা প্রশাসক ড. উর্মি বিনতে সালাম। জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং ডা. সন্জীব মৈতি এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) প্রভাংশু সোম মহান, জেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপপরিচালক খন্দকার মাহবুবুর রহমান, সাংবাদিক নজরুল ইসলাম মুহিব, জেলা প্রতিবন্দী বিষয়ক কর্মকর্তা চন্দন কুমার পাল, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক শফিকুর রহমান ও জেলা তথ্য অফিসার আনোয়ার হোসেন।

বক্তব্য রাখেন ডিডি রায় ববলু, আশিক মিয়া, সুজন হালদার প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ক্ষুদে শিল্পীদের সমন্বয়ে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT