1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
ভূমিকম্পবান্ধব বাড়ী নির্মাণ বাংলাদেশের জন্য জরুরী - মুক্তকথা
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন

ভূমিকম্পবান্ধব বাড়ী নির্মাণ বাংলাদেশের জন্য জরুরী

সংবাদদাতা
  • প্রকাশকাল : শুক্রবার, ২০ জানুয়ারী, ২০১৭
  • ২৩৭ পড়া হয়েছে

লন্ডন: শুক্রবার, ৬ই মাঘ ১৪২৩।। পৃথিবীর চামড়া অর্থাৎ পৃষ্ঠদেশ বা উপরিভাগের ভেতরে বাংলাদেশের নিচে বিশাল আকারের “ফল্ট লাইন” রয়েছে বলে আমেরিকান বিজ্ঞানী ড. মিকায়েল স্টেকলার নিশ্চিত হয়ে বলেছেন। তার কথা, যা ‘অনলাইন মেইল’ পত্রিকায় বিগত ২২ জুলাই লিখেছেন সাংবাদিক ডারেন বয়েল-“Giant ‘megathrust’ fault is discovered in the Earth’s crust under the most densely populated part of the globe that could wipe out ‘tens of millions’ in an earthquake.”।

এই ‘ফল্ট লাইন’ হল, পৃথিবীর মাটি অংশ, বলতে গেলে কয়েকটি বিশাল বিশাল লোহার পাতের উপর স্থিত হয়ে আছে। এই পাত বা ‘প্লেইট’ চলমান। খুব ধীরে ধীরে এই পাতগুলো স্থান পরিবর্তন করে। কখনও কখনও এই পাত বা ‘প্লেইট’ একটির সাথে অপরটির সংঘর্ষ ঘটে এবং অনেক সময় সংঘর্ষের ফলে এক পাত অপর পাতের উপর কিছুটা উঠে যায় কিংবা বলা যায় এক পাত অপর পাতের ভিতরে দেবে যায়। দেবে যাওয়া এই অংশকে ভূবিজ্ঞানীগন নাম দিয়েছেন “ফল্ট লাইন”(Fault Line)। এটি এতো ভয়ঙ্কর কিছু যার কারনে কোন আকস্মিক ভূমিকম্পে লক্ষ লক্ষ মানুষ মিলিয়ে যাবে এক লহমায়।

  • ভূপৃষ্ঠের বাংলাদেশ ভূমির ভেতরভাগে বিস্তীর্ন এলাকা নিয়ে এই স্তরভঙ্গ(ফল্ট লাইন) বা উঁচুনিচু অংশ বিজ্ঞানীদের জরিপে ধরা পড়েছে
  • মারাত্মক এই স্তরভঙ্গের(ফল্ট লাইন) মাঝখানে প্রায় ৬০ মাইল এলাকা নিয়ে প্রায় ১৪০ মিলিয়ন মানুষ বাস করে
  • গবেষকদের ভয়, এই স্তরভঙ্গ যে কোন সময় সূচনা করতে পারে ৯.০ মেগনিচিউড ভূমিকম্প
  • গবেষকদের পরামর্শ বাংলাদেশের প্রয়োজন ভূমিকম্প বান্ধব দালান কোটা নির্মাণ

[Giant ‘megathrust’ fault is discovered in the Earth’s crust under the most densely populated part of the globe that could wipe out ‘tens of millions’ in an earthquake
•Researchers claim Bangladesh needs to build earthquake resistant homes ]

ভূপৃষ্ঠের বহিরাবরনের নিচে বাংলাদেশ অংশে বিশাল আকারের স্তরভঙ্গ(ফল্ট লাইন) লক্ষ্য করা গেছে যা লক্ষ লক্ষ টন পলল মাটিতে ভর্তি। এককথায় গোটা বাংলাদেশের প্রায় ৬০/৭০ মাইল এলাকা নিয়ে এই পলল মাটির বিস্তৃতি রয়েছে। যেখানে প্রায় দেড়কোটির মত মানুষ বাস করে। গবেষক ও বিজ্ঞানীদের মতে যে কোন একটি সামান্য শক্তিশালী ভূমিকম্পে কোটিখানেক মানুষের প্রানহানী ঘটতে পারে।

[A giant fault in the earth’s crust covers by millions of tonnes of sediment in one of the world’s most densely populated areas could kill tens of millions of people, scientists have claimed.
Researchers placed hundreds of  highly accurate GPS receivers in locations across India, Bangladesh and Myanmar and monitored them over a ten year period.
Now the scientists fear the location is home to a megathrust fault which could unleash a 9.0 magnitude earthquake at any minute.]

গবেষকগন ভারত বাংলাদেশ ও মায়ানমারের ওইসব এলাকা বিগত ১০ বছর ধরে উন্নততর যন্ত্রপাতি দিয়ে পরীক্ষা-নীরিক্ষা চালিয়ে এই মতে উপনিত হয়েছেন যে এই ভয়াল স্তরভঙ্গ(ফল্ট লাইন) যে কোন মূহুর্তে ভয়াবহ ৯.০ মেগনিচিউডের ভূমিকম্পের জন্ম দিতে পারে। বাংলাদেশের ওই আশংকামূলক স্থানের অন্যুন ৬০ মাইল এলাকায় ১কোটি ৪০লাখেরও বেশী মানুষ বাস করেন।

ফলে গবেষকগন সংকেত দিয়ে বলেছেন যে, দৈণ্যদশার দালানগুলি ভূমিকম্পের সময় মৃত্যুহার বাড়াবে বৈ কমার কোন সুযোগই নেই।

[More than 140 million people live within a 60 mile area of the potential disaster zone in Bangladesh
Researchers warn that poorly designed buildings in Bangladesh will increase the death toll in an earthquake]

ফটো শিরোনাম: ২০১৫ সালের এপ্রিলে ৭.৯ মাত্রার ভূমিকম্পে কাঠমুন্ডুর ভূপতিত দালান।

[The experts discovered that millions of tonnes of sediment from the Ganges and Brahmaputra rivers has been dumped into the megathrust fault, where one of the earth’s plates is being pushed under another.]

গবেষণা প্রধান কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী ডঃ মিকায়েল স্টেকলার তাদের গবেষণা ফলাফল “নেচার” ‘জার্ণাল’-এ প্রকাশ করেছেন। বিশেষজ্ঞগন আবিষ্কার করেছেন, গঙ্গা ও ব্রহ্মপুত্র নদীর লক্ষ লক্ষ টন পলল মাটি বাংলাদেশের পিঠের নীচে প্রায় ৬০/৭০ মাইল এলাকা জুড়ে থাকা ‘ফল্ট লাইন’এর সুগভীর খাদ ভরাট হয়ে আছে যেখানে পৃথিবীর একটি প্লেট আরেকটি প্লেটের উপরে উঠে গেছে।

এ ধরনের বিশাল গভীর এলাকজুড়ে পললমাটি ভূমিকম্পের সূতিকাগার হিসেবে কাজ করে। ২০০৪ সালের ভারত মহাসাগরের সয়লাব যা কি-না  ‘বান্দা আছেহ’ কে একেবারে ধূয়ে মুছে নিয়ে গিয়েছিল। একই ভাবে ২০১১ সালের জাপানের সুনামি ওই একই কারণে প্রলয়কান্ড ঘটিয়েছিল।

ড. স্টেকলার সিএনএন কে বলেন পৃথিবীর একটি প্লেটের কিয়দংশ আরেকটি প্লেটের উপরে উঠে যাবার ফলে সৃষ্ট বিশাল ভয়ঙ্কর খাদ যা কি-না বাংলাদেশের ৬০মাইল এলাকা জুড়ে রয়েছে এবং পলল মাটিতে ভরাট হয়ে যাবার কারণে গবেষণা কাজ একটু কঠিন; তার ভয়, এই লাইন ক্রিয়াশীল হতে পারে।

যাহাই হোক, জিপিএস ডাটা ব্যবহার করে তারা প্লেট দুটোর গতি ও তার আশ-পাশের স্তরভঙ্গ(ফল্ট লাইন) লক্ষ্য করতে সক্ষম হয়েছেন। স্টেকলার আরও বলেন ৮.২ থেকে ৯.০ স্কেলের ভূমিকম্প তার কাছাকাছি বসবাসকারী শত শত লক্ষ মানুষের জীবনে প্রলয়ঙ্করী জীবনবিনাশের কারণ হতে পারে, এমনকি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়ও।

[Steckler claimed a 8.2 to 9.0 earthquake would have a devastating effect on the tens of millions of people living nearby – even in the Bangladeshi capital Dhaka.]
[He said: ‘The strain is building up and will sometime be released by an earthquake.’ The researchers cannot predict when the earthquake will strike, but he said governments in the region should be ‘building more earthquake resistant structures’…]

বিজ্ঞানী গবেষক ড. মিকায়েল স্টেকলার বলতে পারছেন না কবে নাগাদ এই ভূমিকম্প হতে পারে। তবে এটি ঠিক যে বাংলাদেশ সরকারকে সকল নির্মানের সময় ভূমিকম্প বান্ধব দালান নির্মাণে মনোনিবেশ করতে হবে। (বাংলা খুঁজে না পেয়ে Fault Line এর বাংলা হিসেবে ‘স্তরভঙ্গ’ শব্দটি ব্যবহার করেছি। মূল নিবন্ধের বাংলাদেশ প্রসঙ্গে বাক্যগুলির কিছুটা ইংরাজী অনুসন্ধিৎসু পাঠকের জন্য তুলে দিয়েছি। অনুবাদক: হারুনূর রশীদ)

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT