1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
মুখরা কমলগঞ্জ - মুক্তকথা
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ১০:৪৭ পূর্বাহ্ন

মুখরা কমলগঞ্জ

কমলগঞ্জ(মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি॥
  • প্রকাশকাল : সোমবার, ১ এপ্রিল, ২০২৪
  • ১৯২ পড়া হয়েছে


হাবিবুন নেছা চৌধুরী বালিকা একাডেমির ফলক উন্মোচন

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নে নারী শিক্ষা প্রসারের লক্ষে হাবিবুন নেছা চৌধুরী গালর্স একাডেমি নামে একটি প্রতিষ্ঠানের নামফলক আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করা হয়েছে। সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের পতনঊষার গ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন চৌধুরী কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে জোনাকি কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন চৌধুরী কল্যাণ ট্রাস্টের পরিচালক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম আহমেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সমাজকর্মী মিজানুর রহমান মিস্টারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পতনঊষার ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার তওফিক আহমদ বাবু, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক ফয়জুর রহমান চৌধুরী, আবুল ফজল চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিছবাহুর রহমান চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন চৌধুরী কল্যাণ ট্রাস্টের পরিচালক আতিকুর রশিদ চৌধুরী (সিপার), সাংবাদিক প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, নূরুল মোহাইমিন মিল্টন, শ্রীরামপুর সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলাম চৌধুরী, ইউপি সদস্য তোয়াবুর রহমান তবারক, রিপন ইসলাম ময়নুল, শহীদ নগর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আবুল বশর জিল্লুল, সাংবাদিক পিন্টু দেবনাথ, সমাজসেবক আনোয়ার খান, সোলোমান আহমদ, কবি জয়নাল আবেদীন, সাংবাদিক মাহিদুল ইসলাম, সমাজসেবক রেনু মিয়া, রুহিন উদ্দিন চৌধুরী, শাহজান আলী রাজু, সাংবাদিক তানভীর চৌধুরী, সমাজসেবক রেজাউল করিম লাভলু, সিপার আহমদ প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন চৌধুরী কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে হাবিবুন নেছা চৌধুরী গালর্স একাডেমির নামফলক উন্মোচন করা হয়।

 

নিংতম কাং টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠান

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বাংলাদেশ মণিপুরি কাং ফেডারেশন এর আয়োজনে নিংতম কাং টুর্নামেন্ট-২০২৪ এর সমাপনী ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিকালে কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের নয়াপত্তনস্থ কাংশং এ বাংলাদেশ মণিপুরি কাং ফেডারেশন এর সভাপতি ইবুংহাল সিংহ শ্যামল এর সভাপতিত্বে ও ফেডারেশনের কোষাধ্যক্ষ অশোক মীতৈ ও প্রচার সম্পাদক সমরেন্দ্র কুমার সিংহ এর যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মণিপুরি কালচারাল কমপ্লেক্সের সভাপতি জয়ন্ত সিংহ, সাবেক ইউপি সদস্য মনিন্দ্র কুমার সিংহ, সমাজসেবক বীরলাল সিংহ, সমাজসেবক প্রহল্লাদ সিংহ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফেডারেশন এর সাধারণ সম্পাদক সমরজিত সিংহ।

 

 

সমাপনী খেলায় কোনাগাঁও উজাও লাইরেম্বী কাংখুৎ ৯ পয়েন্ট পেয়ে চ্যাম্পিয়ান হয় এবং মঙ্গলপুর নিত্যানন্দ কাংখুৎ ৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করে রানারআপ হয়। খেলায় মোট ৮টি দল অংশগ্রহণ করে। অনুষ্ঠানে চ্যাম্পিয়ান দলকে ১০ হাজার টাকা ও রানারআপকে ৭ হাজার টাকা পুরষ্কার প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, প্রাচীনকাল থেকেই মণিপুরি সমাজে কাং খেলার প্রচলন ছিল। বিভিন্ন ঐতিহাসিক তথ্যানুযায়ী দ্বাদশ শতাব্দীর প্রথমার্ধে ভারতের মণিপুরে রাজত্বকারী রাজা লোইতোংবার শাসনামলে এই ‘কাং’ খেলার প্রসার ঘটে।

পতনঊষারে বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় মতবিনিময়

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নে একটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার লক্ষে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন চৌধুরী কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে গত বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় ট্রাস্টের কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আব্দুল মতিন চৌধুরী কল্যাণ ট্রাস্টের উপদেষ্ঠা ও পতনঊষার ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সেলিম আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও কবি জয়নাল আবেদীনের সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পতনঊষার ইউপি চেয়ারম্যান অলি আহমদ খান, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী তওফিক আহমদ বাবু, ট্রাস্টের উপদেষ্টা যুক্তরাজ্য প্রবাসী আতিকুর রশীদ চৌধুরী শিপার, সমাজকর্মী ও সাংবাদিক নেতা আব্দুল হান্নান চিনু, সহকারী অধ্যাপক আব্দুল মোমিত চৌধুরী, আবুল ফজল চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিছবাউর রহমান, কমলগঞ্জ সাংবাদিক সমিতির সভাপতি নূরুল মোহাইমীন মিল্টন, শহীদনগর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আবুল বশর জিল্লুল, কমলকুঁড়ি পত্রিকার সম্পাদক পিন্টু দেবনাথ, এড. বয়তুল হক চৌধুরী, শিক্ষক ফয়জুর রহমান চৌধুরী, আমিনুল ইসলাম, ইউপি সদস্য তোয়াবুর রহমান, রিপন ইসলাম ময়নুল, সমাজসেবক হাজী সুলেমান মিয়া, আতিকুর রশীদ চৌধুরী কামরান, মো. আনোয়ার খান, রুহিন উদ্দিন চৌধুরী, শাহাজান আলী রাজু, তানভীর চৌধুরী, ফয়সল আহমদ ফাহিম প্রমুখ।

সভায় এলাকার শিক্ষার্থীদের পাঠদানের জন্য পতনঊষার ইউনিয়নে একটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় সাইনবোর্ড স্থাপন করে কার্যক্রম শুরু করার পক্ষে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

শমশেরনগর হাসপাতাল ভবনের কক্ষের নাম ফলক উন্মোচন

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর ইউনিয়নের মরাজানের পার এলাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে নব নির্মিত একতলা ভবনের তিনটি কক্ষের নাম ফলক উন্মোচন করা হয়। শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২ টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে দুটি কক্ষের নাম ফলক উন্মোচন করেন কমলগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. রইছ আল রেজুওয়ান ও কক্ষের আর্থিক সহায়তাকারী ইংল্যান্ড প্রবাসী এ কে এম জিল্লুল হকসহ অতিথিবৃন্দ।

শমশেরনগর হাসপাতাল কমিটির নির্বাহী সভাপতি বিশিষ্ট কন্ঠ শিল্পী সেলিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কমলগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. রইছ আল রেজুওয়ান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইংল্যান্ড প্রবাসী শিবলী আহমদ চৌধুরী, কমলগঞ্জ উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী মো. সুজন আহমেদ, শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক শামীম আকন্জী। শমশেরনগর হাসপাতাল কমিটির নির্বাহী সহ সভাপতি মুজিবুর রহমান রঞ্জুর সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দাতা পরিবার সদস্য শাম্মী চৌধুরী, আব্দুস শহীদ, প্রধান শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম ও মাওলানা মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন।

দ্বিতীয় পর্বে বেলা ৩ টায় কানাডা প্রবাসী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শফিকুল হক এসে শমশেরনগর হাসপাতাল তহবিলে ১ লাখ টাকার চেক প্রদান করেন। তিনি শমশেরনগর হাসপাতাল স্থায়ী তহবিলে বার্ষিক ১০ হাজার টাকা করে প্রদানের ঘোষণা দেন। এরপর আমেরিকা প্রবাসী দাতা সদস্য শফিকুর রহমান, মো. শাহাব উদ্দিন ও নুর-ই-আলম জিকু শমশেরনগর হাসপাতাল ভবনে এসে আমেরিকা প্রবাসী রফিকুল ইসলাম চৌধুরী রানার স্ত্রী মনোয়ারা চৌধুরীর নামে বরাদ্ধকৃত একটি কক্ষের নাম ফলক উন্মোচন করেন। প্রবাসী মো. শাহাবুদ্দিন শমশেরনগর হাসপাতাল তহবিলে নতুন করে আবার ৫০ হাজার টাকার চেক প্রদান করেন। এসময় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুজিবুর রহমান চৌধুরী মুকুল, আমিনুল হক খোকন প্রমুখ।

কমলগঞ্জে শিকারের সরঞ্জামসহ ৩৮টি মুনিয়া পাখি উদ্ধার

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে শিকারীর কবল থেকে পাখি শিকারের সরঞ্জামসহ মুনিয়া পাখি উদ্ধার করে বন বিভাগ।

রাজকান্দি রেঞ্জের আদমপুর বিট কর্মকর্তা ইকবাল হোসেন জানান, গত রোববার সকাল ৯টায় গোপন সুত্রে খবর পেয়ে উপজেলার সীমান্তবর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের কালারায়বিল এলাকা থেকে পাখি ধরার সরঞ্জাম জালসহ ৩৮টি মুনিয়া পাখি উদ্ধার করি। এর মধ্যে ২৯টি পাখিই জবাই করা এবং ৮টি পাখি জীবিত ছিল। বনবিভাগের উপস্থিতি টের পেয়ে পাখি শিকারী জাল ও পাখি রেখে পালিয়ে যায়। পরে পাখি শিকারের সরঞ্জাম জাল পুড়িয়ে আদমপুর বিট অফিস সংলগ্ন সংরক্ষিত বনাঞ্চলে পাখি অবমুক্ত করা হয়েছে।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT