1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
উপদেশমূলক কিচ্ছা কাহিনী - মুক্তকথা
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন

উপদেশমূলক কিচ্ছা কাহিনী

সংবাদদাতা
  • প্রকাশকাল : শনিবার, ৭ এপ্রিল, ২০১৮
  • ৩২০ পড়া হয়েছে

[সংগ্রহ]

এক মহিলা তার ঘর থেকে বের হয়ে উঠানে আসতেই  দেখলেন, উঠানের মাঝামাঝি জায়গায় তিনজন বৃদ্ধ ব্যক্তি বসে আছেন। তিনি তাদের কাউকেই চিনতে পারলেন না। তাই বললেন, ‘আমি আপনাদের কাউকেই চিনতে পারলাম না, আপনারা কার জন্য এসেছেন?
তারা জিজ্ঞেস করলেন  ‘বাড়ির কর্তা কি বাড়ীতে আছেন?’
মহিলা উত্তরে বললেন, ’না’। ‘তিনি বাইরে গেছেন।’ মহিলা তাদের দিকে একটু ভাল করে নজর দিয়ে বললেন- ‘মনে হচ্ছে আপনারা ক্ষুধার্ত। আপনারা ওই ঘরে গিয়ে বসুন, আমি আপনাদের কিছু খাওয়ার ব্যবস্থা করছি।’
‘কর্তা বাড়ীতে যেহেতু নেই আমরা ঘরে বসতে পারবো না। বাইরে ওই গাছের নিচে বসে একটু অপেক্ষা করে দেখি উনি আসে কি-না?’

বহু পরে সন্ধ্যার দিকে কর্তা বাড়ী ফিরলেন।
বাড়ী ফিরে কর্তা স্ত্রী’র কাছে সব শুনে স্ত্রী’কে  বললেন, ‘ আরে, তুমি বুঝতে পারোনি? যাও তাদের বলো যে আমি ফিরেছি এবং তাদের ঘরে আসতে বলো।’
মহিলা বাইরে গেলেন এবং তাদের ভেতরে আসতে বললেন। কিন্তু তারা বললো, ‘আমরা এভাবে আসতে পারি না।’
মহিলা জিজ্ঞেস করলেন, ‘কিন্তু কেন? সারা দিন বসে রইলেন যার জন্য, তিনি এসেছেন এবং আসতে বলেছেন। এখন আবার কি সমস্যা?’
বৃদ্ধ লোকদের মধ্য থেকে একজন বললেন, ‘এই যে দেখছেন সুন্দর মানুষটা উনার নাম-‘ সম্পদ।’
আর ওই যে দেখছেন সৌম্যকান্তি হাসিমুখে বসে আছেন, ‘তার নাম- ‘সাফল্য’ আর আমি, এই অধমের নাম- ‘ভালবাসা।’
‘এখন আপনি ভেতরে গিয়ে আপনার স্বামীর সাথে আলাপ করে সিদ্ধান্ত নিন আমাদের কাকে আপনি ভেতরে ঢুকতে দেবেন।’

অচিন মানুষগুলোর অদ্ভুত ধরনের কথা শুনে অনেকটা বিস্মিত হয়েই মহিলা ভেতরে গিয়ে স্বামীর কাছে সব খুলে বললেন। ঘটনা শুনে তার স্বামী অত্যন্ত খুশি হয়ে বললেন, ‘অসাধারন! চল আমরা সম্পদকে ডাকি, তাহলে আমরা ধনী হয়ে যাব!’
তার স্ত্রী এতে সম্মতি দিলেন না, ‘তিনি বললেন- ‘নাহ, আমার মনে হয় আমাদের সাফল্যকেই ডাকা উচিত।’
তাদের মেয়ে ঘরের অন্য প্রান্তে বসে সব শুনছিলো।
সে বলে উঠলো, ‘আব্বু-আম্মু! তোমাদের কি মনে হয় না আমাদের ভালবাসাকেই ডাকা উচিত? তাহলে আমাদের ঘর ভালবাসায় পূর্ণ হয়ে উঠবে।’
লোকটি বললেন, ‘ঠিক আছে আমরা তাহলে আমাদের মেয়ের কথাই শুনবো, তুমি যাও এবং ভালবাসাকেই আমাদের অতিথি হিসেবে ডেকে নিয়ে এসো।’

মহিলাটি বাইরে গেলেন এবং বললেন-‘আপনাদের মধ্যে ভালবাসা কার নাম? অনুগ্রহ করে তিনি ভেতরে আসুন, আপনিই আমাদের অতিথি।’ নিশ্চিন্তে নীরবে বসে থাকা ভালবাসা নামের বৃদ্ধ উঠে দাড়ালেন এবং বাড়ির দিকে হাটতে শুরু করলেন। বুড়ো মানুষটি দু-এক কদম যাবার পর বাকী দুজনও উঠে দাঁড়ালেন এবং তাকে অনুসরন করতে লাগলেন। ভদ্রমহিলা এতে ভীষন অবাক হয়ে গেলেন এবং বললেন- ‘আমিতো শুধু ভালবাসা নামের এই মানুষটিকে ভেতরে আসার আমন্ত্রন জানিয়েছি, আপনারা কেন তার সাথে আসছেন?’

বৃদ্ধ দু’জন বললেন, ‘আপনি যদি সম্পদ আর সাফল্যকে আমন্ত্রন করতেন তা’হলে আমাদের বাকী দু’জন বাইরেই থাকতাম, কিন্তু আপনি যেহেতু ভালবাসাকে আমন্ত্রন জানিয়েছেন তাই আমাদের আসতেই হয়। কারণ ভালবাসি বলেই, সে যেখানে যায়, আমরা দু’জনও সেখানেই যাই। যেখানেই ভালবাসা থাকে, সেখানেই আমি ‘সম্পদ’ আর বন্ধু ‘সাফল্য’ না থেকে পারি না। আমাদেরতো ‘ভালবাসা’র সাথে থাকতেই হয়। আর সকলের মতো আমাদের দু’জনেরও ভালবাসার একান্ত প্রয়োজন। ভালবাসাইতো  আমাদের আজীবন এক করে মায়ার বাধনে বেঁধে রেখেছে।
[কাল্পনিক কাহিনী: সংগ্রহ- সিদ্দিকুর রহমান ফটিক। হারুনূর রশীদ কর্তৃক ঈষৎ পরিবর্ধিত]

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT