1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
মানুষপোড়া ছাঁইভস্মে হীরক হয় - মুক্তকথা
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৪:৫০ পূর্বাহ্ন

মানুষপোড়া ছাঁইভস্মে হীরক হয়

সংবাদদাতা
  • প্রকাশকাল : শনিবার, ৫ নভেম্বর, ২০১৬
  • ৯৮৯ পড়া হয়েছে

ashesমুক্তকথা: শনিবার, ৫ই নভেম্বর ২০১৬।।  এ দুনিয়ায় প্রতিনিয়ত কত ঘটনাই না ঘটছে তার হিসেব কয়জন রাখে। অনেকটা তাক লাগিয়ে দেয়া তেমনি একটি সংবাদ দিয়েছে “ডেইলি মশন” নামের একটি অনলাইন। মরে যাবার পর যারা মৃতের শরীর দাহ করেন সংবাদটি তাদের জন্য বলতে গেলে অনেকটা মহামূল্যবান আনন্দের।

এখানকার একটি লেবরেটরি মানুষের শরীর পোড়া ছাঁইভস্ম দিয়ে মহামূল্যবান হীরা বানানোর কৌশল খুঁজে পেয়েছে। ফলে, যে কোন ব্যক্তি তার অতি আদরের প্রিয় মা-বাবা, ভাই-বোন, ছেলে-মেয়ে কিংবা সন্তানের পোড়া ছাঁইভস্ম দিয়ে হীরা বানিয়ে আমৃত্যু শরীরে ধারন করতে পারবেন। মরে যাবার পর কবর না দিয়ে যারা দাহ করেন তাদের জন্য খবরটি একটি বিশাল প্রাপ্তি। নিজের প্রিয়জনকে হীরা বানিয়ে হাতে, কোমরে বা গলায় অল্ঙ্কার করে রাখতে পারবেন। 

তবে বেশ খরচ আছে! কমতো নয়ই বরং সাধারণ মানুষের সাধ্যের বাইরে। এ প্রক্রিয়ায় প্রতিটি শবছাঁইকে হীরা বানাতে খরচ পড়বে মার্কিন ডলারে ৫ হাজার থেকে ২০ হাজার ডলার। লেবরেটরি দেখিয়েছে একজন মানুষের ছাঁইভস্ম দিয়ে ০.৫ কেরট হীরক পাওয়া যায়। মানুষ পোড়া ছাঁইভস্মে যে কার্বন থাকে তাকে প্রচন্ড তাপ ও চাপে রাখতে হয়। একাজে, একটি মানুষের ছাঁইভস্মকে হীরকে রূপান্তরীত করতে প্রায় ৪সপ্তাহ সময় লেগে যায়। রূপান্তরীত প্রতিটি হীরক কণা অসাধারণ অপূর্ব। এ পদ্বতিতে অধিকাংশ হীরাপাথর নীল বর্ণ ধারণ করে। ছাঁইভস্মের সাথে মানব শরীরের জলীয় অংশ মিশে পাথরটি এ বর্ণ পায়।

হেলমুট ওয়েইজ নামের একজন স্থানীয় বাসিন্ধা বলেছেন- “হীরক হওয়ার চেয়ে সার হয়ে মাটিতে মিশে থাকাই আমার কাছে আনন্দের।”

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT