1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
সাংবাদিকতার ঝুঁকি মোকাবিলা করেই এগিয়ে যেতে হবে - মুক্তকথা
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৫:১৯ পূর্বাহ্ন

সাংবাদিকতার ঝুঁকি মোকাবিলা করেই এগিয়ে যেতে হবে

সংবাদদাতা
  • প্রকাশকাল : বৃহস্পতিবার, ৪ মে, ২০১৭
  • ২৯১ পড়া হয়েছে

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসে প্রেসক্লাবের আলোচনা সভা

লন্ডন: সাংবাদিকতার ঝুঁকি মোকাবিলা করেই এগিয়ে যেতে হবে। গতকাল বুধবার বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাব আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
ম্যানেজমেন্ট এন্ড রিসোর্সেস ডেভেলপমেন্ট ইনিশিয়েটিভ (এমআরডিআই) ও ফোয়ো মিডিয়া ইনস্টিটিউট, সুইডেনের-এর সহযোগিতায় ‘বাংলাদেশে মুক্ত গণমাধ্যমের বর্তমান চিত্র’ শীর্ষক এই সভার আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহম্মদ শফিকুর রহমান। সেমিনারে দেশের গণমাধ্যমের সার্বিক চিত্র নিয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল।
ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্তের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, ইত্তেফাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান, যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন।
আলোচনা সভায় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল-এর প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করে বলেন, তাদের এই প্রতিবেদন পক্ষপাতদুষ্ট, উদ্দেশ্যমূলক। তিনি বলেন, দেশে তথ্য বিকৃতকারী, উস্কানিদাতা, চক্রান্তকারীরা চাপে রয়েছে। কোনো সংবাদমাধ্যম বা সাংবাদিক চাপে নেই। তিনি আরো বলেন, কোনো আইনের মাধ্যমে গণমাধ্যমের অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করা হচ্ছে না। বরং গণমাধ্যমের বিকাশে আরো আধুনিক ও যুগোপযোগী আইন তৈরির উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে মান্ধাতা আমলের আইনগুলো বাতিল ও পুরনো আইনগুলো হালনাগাদ ও যে বিষয়ে এখনো কোনো আইন তৈরি করা হয়নি সে বিষয়ে আইন তৈরি করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, প্রায় ২ হাজার অনলাইনের মধ্যে মাত্র ৩৫টি অনলাইনের প্রকাশনা বন্ধ রাখা হয়েছে বিভিন্ন ধরনের উদ্দেশ্যপূর্ণ, মিথ্যা ও উস্কানিমূলক রিপোর্ট প্রকাশের জন্য। সরকারের সমালোচনার জন্য আজ পর্যন্ত একটি অনলাইনও বন্ধ করা হয়নি। তিনি বলেন, বিভিন্ন সময় যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতেই করা হয়েছে। এটা কোনো গণমাধ্যম বা সম্পাদক দমনের জন্য করা হয়নি।
অনুষ্ঠানে সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার বলেন, দেশে সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে ঝুঁকি বাড়ছে। এটা মোকাবেলা করেই এগিয়ে যেতে হবে। পেশাগত ক্ষেত্রে কোনো সাংবাদিককে হত্যা করা হলে বা কেউ নিহত হলে তার বিচার দ্রুত বিচার আইনে করতে হবে। দেশে আইসিটি অ্যাক্টের খারাপ দিক হলো- এ ধারায় জামিন দেওয়া যাবে না। বিশ্বের অন্যান্য দেশে আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে সমালোচনা করা গেলেও এখানে তা আদালত অবমাননার পর্যায়ে পড়ে। বর্তমান পেক্ষাপটে আদালত অবমাননার আইন নতুন করে লেখা হোক। তিনি বলেন, দেশে দ্রুত গণমাধ্যমের বিকাশ ঘটছে।
প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, গণমাধ্যম সংক্রান্ত আইন-কানুন যেন গণমাধ্যম সহায়ক হয়। এগুলো যেন কোনোভাবেই চাপিয়ে দেয়া বা গণমাধ্যম নিবর্তনমূলক না হয়। স্বাধীনতার অপব্যবহার রোধেও আইনের প্রয়োজন রয়েছে। সাংবাদিকতার স্থিতিশীলতার জন্য এডিটরিয়াল কাউন্সিল গঠনের কথা বলেন তিনি।
প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, বিভিন্ন সময় সংবাদপত্র সরকারের রোষানলে পড়ছে। ১৯৯৩ সালে বিএনপি সরকার ভোরের কাগজ এবং ২০০০ সালে আওয়ামী সরকার প্রথম আলোর বিজ্ঞাপন বন্ধ করে দিয়েছিল। বর্তমানেও চাপ ও ভয়ভীতি থেকে সংবাদপত্র মুক্তি পায়নি।
মনজুরুল আহসান বুলবুল বলেন, গণমাধ্যমের দিক থেকে বাংলাদেশ আংশিক স্বাধীন দেশ। মুক্ত গণমাধ্যমের জন্য অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে। বিশেষ করে এখন পর্যন্ত গণমাধ্যম সংক্রান্ত অনেক আইন রয়েছে পুরাতন। আবার অনেক ক্ষেত্রে আইনের প্রয়োজন হলেও এখন পর্যন্ত কোনো আইন তৈরি করা হয়নি। সম্প্রচার আইন শেষ করা হয়নি। অনলাইনে সাংবাদিকতার জন্য কোনো আইন তৈরি করা হয়নি। কিন্তু সরকার অবাধে লাইসেন্স দিয়ে যাচ্ছে। আবার নতুন যেসব আইন করা হয়েছে তারও অপপ্রয়োগ করা হচ্ছে।
ইত্তেফাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাসমিমা হোসেন বলেন, সংবাদপত্রে মানুষের কণ্ঠস্বর তুলে ধরতে হবে। আগে আদর্শের জন্য দায়িত্ব বোধ থেকে গণমাধ্যম কাজ করত এখন অনেক ক্ষেত্রেই ব্যবসা ও স্বার্থের জন্য গণমাধ্যম প্রকাশ করা হচ্ছে। গণমাধ্যম কর্মীদের চর্চা ও প্রশিক্ষণের উপর জোর দেন তিনি। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে বিভিন্ন গণমাধ্যমের সম্পাদক ও সিনিয়র সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। খবর ইত্তেফাকের।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT