1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
চোর সন্দেহে পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করে মারা হলো যুবককে - মুক্তকথা
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:২৮ পূর্বাহ্ন

চোর সন্দেহে পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করে মারা হলো যুবককে

রাজন আহমদ॥
  • প্রকাশকাল : শুক্রবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১৪৭৪ পড়া হয়েছে

 

রাতের আঁধারে প্রকাশ্যে পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মানুষ হত্যার মত জঘণ্য অগ্রহনযোগ্য অপরাধের ঘটনা ঘটলো মৌলভীবাজারে

জানা যায়, চুরির অভিযোগে পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মারা হয়েছে এক যুবককে। পরিবারের দাবি এটি পরিকল্পিত হত্যা

আইন হাতে তুলে নিয়ে মানুষ হত্যার জঘণ্য অপরাধ এবার ঘটলো মৌলভীবাজারে। চোর সন্দেহে ছায়েম মিয়া(৩৫) নামের এক যুবককে পিটিয়ে এবং ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মারা হয়েছে। গত বুধবার রাত ১২টা থেকে ১টার মধ্যে সদর উপজেলার গিয়াসনগর ইউনিয়নের টিলাগ্রাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে আজ দুপুরে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, নিহত ছায়েমের স্ত্রী এবং সন্তানসহ পরিবারের সদস্যরা মরদেহের পাশে বসে আছেন। কেউ কাঁদছেন, কেউ অপলকভাবে লাশের দিকে চেয়ে আছেন। এসময় ছায়েমের মাথা এবং শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়।

ছায়েম গিয়াসনগর ইউনিয়নের নিতেশ্বর গ্রামের রিয়াজ মিয়ার ছেলে। তাঁর বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গিয়াসনগর ইউনিয়ন পরিষদের(ইউপি) চেয়ারম্যান গোলাম মোশাররফ টিটু বলেন- ‘গতকাল রাত ১২টার দিকে চুরি করতে গেলে লোকজন ছায়েম মিয়াকে ধরে ফেলে। পরে লোকজন তাকে ধাওয়া দিয়ে পিটুনি দিয়েছে। ছায়েম পেশাদার চোর। চুরির অভিযোগে জেলে ছিল। এক সপ্তাহ আগে জামিনে বেরিয়ে আবার চুরি শুরু করেছে। মানুষজনকে একেবারে জ্বালিয়ে তুলেছে। এলাকার মানুষ তাই ছায়েমের ওপর ক্ষুব্ধ ছিল।’

মৌলভীবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইয়াছিনুল হক বলেন, চুরির অভিযোগে ছায়েমের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয়ভাবে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। প্রকৃত ঘটনা জানার চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি।

এদিকে নিহত ছায়েমের বাবা রিয়াজ মিয়া(৫০) বলেন, ‘পূর্ব শত্রুতা থাকায় পরিকল্পিত ভাবেই আমার ছেলেকে ধরে নিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে কুপিয়ে মারা হয়েছে। আমার ছেলের মাথায় এবং শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন আছে। যারা আমার বুকের সন্তানকে খুন করেছে, আমি তাদের বিরুদ্ধে মামলা করব।’

ছায়েমের হত্যার বিচার চেয়ে মানববন্ধন করেছেন এলাকার মানুষজন

ময়নাতদন্ত শেষে দাফন হয়েছে নিজ বাড়িতে

এদিকে, গত বুধবার ১৪ সেপ্টেম্বর তারিখ দিবাগত রাতে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার গিয়াসনগর ইউনিয়নের টিলাগ্রাম এলাকায় চোর সন্দেহে ক্ষিপ্ত মানুষের আঘাতে ঘটনাস্থলে নিহত যুবক ছায়েমের হত্যার বিচার চেয়ে মানববন্ধন করেছেন মৃত ছায়েমের নিজ এলাকা নিতেশ্বর- মোকামবাজার এলাকার লোকজন।

গতকাল সন্ধ্যার পূর্বে শুরু হওয়া মানববন্ধনে কয়েকশত নারী-পুরুষ অংশগ্রহণ করেন। এক পর্যায়ে লোকজন ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরুদ্ধ করে দিলে দু’পাশে শত শত গাড়ি আটকা পড়ে দীর্ঘ যানজট শুরু হয়। মহাসড়ক অবরুদ্ধ হয়ে আছে শুনে সাথে সাথে মৌলভীবাজার মডেল থানার একটি ফোর্স গিয়ে লোকজনকে সড়ক থেকে সরালে আটকে পরা যানবাহন সচল হয়।
মানববন্ধনে নিহত ছায়েমের মা-বাবা, ভাই-বোন, ৯ মাসের বাচ্চা এবং ৭ বছরের বড় সন্তানসহ পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

মৌলভীবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইয়াছিনুল হক গতকাল সন্ধ্যায় বলেন- ‘তদন্ত সাপেক্ষে বিষয়টি এগুচ্ছে। এমন অবস্থায় কোন বলা নেই, কওয়া নেই লাশ সদর হাসপাতালে ফেলে রেখে তাঁরা মানববন্ধন করতে রাস্তায় নেমেছেন। সড়ক অবরোধের খবর পেয়ে সাথে সাথে আমাদের ফোর্স গিয়ে লোকজনকে সরালে যানবাহন সচল হয়।’

এদিকে গতকাল রাতে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে মরদেহের ময়নাতদন্ত শেষে আজ শুক্রবার নিহত ছায়েমের নিজ বাড়িতে বিকাল ৪টায় যানাজা ও দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

উল্লেখ যে, গত বুধবার দিবাগত রাতে চোর সন্দেহে ছায়েম মিয়া(৩৫) নামের এক যুবককে পিটিয়ে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই যুবকটি মারা যায়। সদর উপজেলার গিয়াসনগর ইউনিয়নের টিলাগ্রাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT