1. muktokotha@gmail.com : Harunur Rashid : Harunur Rashid
  2. isaque@hotmail.co.uk : Harun :
  3. harunurrashid@hotmail.com : Muktokotha :
আমাদের কাফির, হিন্দুদের দাস তখনও বলেছিল এখনও বলছে, এই ওয়াজ তাদের টিকে থাকার একমাত্র অস্ত্র - মুক্তকথা
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন

আমাদের কাফির, হিন্দুদের দাস তখনও বলেছিল এখনও বলছে, এই ওয়াজ তাদের টিকে থাকার একমাত্র অস্ত্র

সংবাদদাতা
  • প্রকাশকাল : মঙ্গলবার, ২৭ জুন, ২০১৭
  • ৪৮৭ পড়া হয়েছে

হারুনূর রশীদ।।

নাম বলছি না। আমার একসময়ের রাজনৈতিক সহযোগীর কন্যা। খুব রাজনৈতিক সচেতন পরিবারের কন্যা সে। ভারতীয় ষ্টার জলসাকে খুনের শামিল বলে ফেইচবুকে লিখেছে। তার ওই ফেইচবুক লিখা দেখেই আজকের এ কয়েকটি লাইন। বলতে পারি তার উদ্দেশ্যেই নিবেদিত।
ষ্টার জলসা দেখার সুযোগ হয়ে উঠেনা আমার। মাঝে মাঝে দেখি। ঐ দেখা থেকে একটি বিষয় বুঝতে পারি যে ওই সিরিয়াল গুলো মানুষের বিশেষ বিশেষ চারিত্রিক বৈশিষ্টগুলো তুলে ধরে। মানব চরিত্রের যেসব দিক মানুষ নিজে থেকেই গোপন রাখে। কিন্তু চরিত্রের সেই কাজগুলো সে ঠিকই করে যায়। এতে সামাজিকভাবে মানুষ খুবই ক্ষতিগ্রস্থ হয়। পারিবারিকভাবে বলতে গেলে পরিবার ভাঙ্গার উপক্রম হয়। যদিও কোন পরিবার ভেঙ্গেছে ওই সিরিয়াল দেখে তেমন কোন খবর প্রত্যক্ষ করিনি আজও।
বাংলাদেশে ‌ও বৃটেনের বাঙ্গালী সম্প্রদায়ের মাঝে ‌ওই সিরিয়াল নিয়ে ব্যাপক অভিযোগ। তাদের অভিযোগ ‌ওইসব সিরিয়াল মানুষের মনোজগতের বিভিন্নমূখী কূটকৌশলকে খোলামেলাভাবে সামনে নিয়ে আসে যা নবপ্রজন্মের শিশু-কিশোরদের মাঝে এমনকি মা-বাবাদের মাঝে‌ও ব্যাপক গুঞ্জনের সৃষ্টি করে চলেছে। খুব খারাপ একটা কিছু শিখছে ‌ওই সিরিয়াল দেখে নবপ্রজন্মের শিশু-কিশোরেরা। এসব সমালোচকদের অভিমত- মানব জীবনে বহুকাজ মানুষকে করতে হয়। এমন‌ও কাজ আছে যা মানুষ না জেনে-শুনে করে। আবার কোনটা সে খারাপ জেনে‌ও করে। কিন্তু মানুষ বুঝে যে, সে একটা খারাপ কাজ করছে। হয়তোবা চরিত্রগত কারণেই সে এ কাজগুলো করে থাকে। তবে কোন অবস্থাতেই তার ‌ওই খারাপ কাজ সে অন্যকে দেখাতে চায় না। গোপন রাখে। এমন ধরনের কাজই ‌ওই সিরিয়াল গুলোতে তুলে ধরা হয় খুবই নেতিবাচকরূপে! যা থেকে কোন মানুষই লাভবান হ‌ওয়াতো দূরের কথা ক্ষতিগ্রস্তই হয় বেশী।
প্রশ্ন হচ্ছে এসব সিরিয়াল ভারতের মত বিশাল দেশের মানুষজন সবসময় দেখেই আসছে। তাদেরতো কখনও শুনিনি এসব সিরিয়ালের বিরুদ্ধে কথা বলতে। তা’হলে আমাদের সমস্যাটা কোথায়?
আমরা নিত্যদিন হরেক রকম কাজ করে যাচ্ছি। সে কাজ করতে গিয়ে যেগুলো অন্যের ক্ষতির কারণ হবে বা হতে পারে সেগুলোকে আমরা নিজে থেকেই লুকিয়ে রাখার চেষ্টা করি। একাজে ধনী-গরীব, হাজিসাব, কাজীসাব, গাজীসাব, দেওয়ান সাব, খান সাব সকলেই একই চরিত্রের। আমরা আমাদের বিরুদ্ধবাদীদের ক্ষতি করতে চাই। আবার অনেক সময় সে ক্ষতি করতে চাই গোপনে। যাতে কেউ বুঝতে না পারে।
এর অর্থ দাড়ায় পরিবারে বা সমাজে আমি ভাল মানুষ হয়ে থাকতে চাই। আর পেছনে পেছনে অন্যের ক্ষতি করতে চাই। এটা কি হটকারিতা নয়!
আমার নিজের কাছে আমার প্রশ্ন, এটা কি ঠিক? আর কেউ যদি আমাদের এই হটকারিতাকে, কারো নাম-ধাম না বলে, সমাজের সামনে রূপকভাবে তুলে ধরে সে কি অন্যায়? এই আকামগুলো দেখে আমাদের কি শিক্ষা নেয়ার কিছুই নেই! নিজেদের আকাম দেখে আমরাতো আমাদের বদলাতেও পারি। বিষয়টিকে এভাবে দেখলে আমাদের ভালইতো দেখি।
বলা যায়, এসব দেখে অনেক ভাল মানুষ এসব শিখে নিয়ে খারাপে পরিণত হবে। হ্যাঁ, মানি, এটা হলে হতেও পারে। তা’হলে স্বীকার করতে হবে এই সিরিয়ালগুলোর দু’দিকই আছে। ভালও আছে খারাপও আছে। তা’হলে আর দোষ কোথায়! ভাল খারাপ মিলিয়েইতো আমরা মানুষ। এ নমুনার অনেক ভাল-খারাপ আমরা প্রায় প্রতিদিনই প্রত্যক্ষ করে যাচ্ছি। এসব টিভি বা ছায়া-ছবিতে দেখার মাঝে একটা বিনোদনের যে দিক রয়েছে তা‌ওতো খুব ফেলনা নয়।
আমাদের চলচ্চিত্র বা টিভি কৃৎ-কৌশলের দিক থেকে এখন মানের যে পর্যায়ে আছে, উন্নত কৃৎ-কৌশলের সাথে প্রতিযোগীতায় না যেতে পারলে তাদেরও কৌশলগত উন্নয়ন স্লথ থাকবে। যুগ যুগ পেছনেই পড়ে থাকবে। এমনিতেইতো আমাদের ৪৫ বছর চলে গেছে সম্পদশালী হওয়ার রাজনৈতিক মারামারিতে। এতো কিছুর পরে এখনও আমরা একমত হতে পারিনি ধর্মনিরপেক্ষ দেশ গড়ে তোলার প্রশ্নে। এ লড়াই এখনও চলছে। অথচ আমরা প্রকাশ্য যু্দ্ধ করেছি দ্বিজাতি তাত্ত্বিক পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একটি অসাম্প্রদায়িক ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশ গড়ে তোলার লক্ষ্যে। এটাতো কোন বানিয়ে বলা কথা নয়। সূর্যের মত উজ্জ্বল সত্য একটি বিষয়। আজ যারা ধর্মের নামে বিভিন্ন নমুনায় মায়াকান্না দেখাচ্ছে এরা সেই ১৯৪৭ সাল থেকে ১৯৭১ সাল অবদি একই নমুনায় ওয়াজ নসিহৎ করেছিল। আমাদের কাফির, হিন্দুদের দাস তখনও বলেছিল এখনও বলছে। এই ওয়াজ তাদের টিকে থাকার একমাত্র অস্ত্র। এসব হটকারী মধ্যযুগীয় অপরাজনীতির বিরুদ্ধে আবারো লড়াইয়ের প্রয়োজন যে মূহুর্তে সে সময় ভারতীয় মামুলি টিভি’র অনুষ্ঠানের বিরুদ্ধে শাণিত তলোয়ার দেখানো নতুন হঠকারিতার সামিল বলেই মনে করি।
খারাপ কাজ থেকে নিজেদের সরিয়ে রাখবো আর ভালটিকে গ্রহন করবো, এটাইতো ভাল মানুষের কর্ম হওয়া উচিৎ। নয়কি!

এ জাতীয় সংবাদ

তারকা বিনোদন ২ গীতাঞ্জলী মিশ্র

বাংলা দেশের পাখী

বাংগালী জীবন ও মূল ধারার সংস্কৃতি

আসছে কিছু দেখতে থাকুন

© All rights reserved © 2021 muktokotha
Customized BY KINE IT